২১ জুন ২০১৯ ৬:১৩:৩৬
logo
logo banner
HeadLine
সবাইকে তিনটি করে গাছ লাগানোর আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর * ৩০ জুন সন্দ্বীপ পৌরসভার বাজেট উপস্থাপন * প্রবৃদ্ধিতে এশিয়া-প্যাসিফিকে শীর্ষে বাংলাদেশ: এডিবি * চলতি অর্থবছরের ১৫ হাজার ১৬৬ কোটি টাকার সম্পূরক বাজেট পাস * সন্দ্বীপ পৌরসভায় বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা আন্তঃপ্রাথমিক বিদ্যালয় গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট-২০১৯ উদ্ভোধন * দূর্দান্ত জয় টূর্ণামেন্টে ফিরল টাইগাররা * ৩২২ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করছে বাংলাদেশ * টিকে থাকার ম্যাচে টস জিতে ফিল্ডিংয়ে বাংলাদেশ, একাদশে লিটন * ব্যাংকে টাকা আছে তবে লুটে খাওয়ার টাকা নেই: সংসদে প্রধানমন্ত্রী * সামনে দেশী-বিদেশী নানা চক্রান্ত ষড়যন্ত্র, ওসব মোকাবেলায় প্রস্তুত থাকুন - প্রধানমন্ত্রী * চট্টগ্রামে বিশ্বমানের সেবা নিয়ে আজ যাত্রা শুরু করছে ইম্পেরিয়াল হাসপাতাল * ঋণের সুদের হার সিঙ্গেল ডিজিটে নামিয়ে না আনলে কঠোর ব্যবস্থার হুশিয়ারি * পত্রিকা-টিভির মালিকদের ঋণের খবর নিতে বললেন প্রধানমন্ত্রী * অনলাইন নিউজ পোর্টাল নিবন্ধনের তাগিদ প্রধানমন্ত্রীর * ২০৩০ সালের মধ্যে ৩ কোটি যুবকের কর্মসংস্থান করা হবে * নির্বাচনী ইশতেহার অনুযায়ী 'আমার গ্রাম আমার শহর' বাস্তবায়নে ৬৬২৩৪ কোটি টাকা * এই বাজেটে ধনী ও ব্যবসায়ী গোষ্ঠীর স্বার্থ রক্ষা করছে সরকার: বিএনপি * এ বাজেট জনকল্যাণমুখী: বাজেট পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী * ২০১৯-২০ বাজেট বক্তৃতায় দেশের অগ্রগতি ও উন্নয়নের ইতিবাচক কিছু তথ্য * একনজরে স্বাধীন বাংলাদেশের সকল বাজেট : ৭৮৬ কোটি থেকে ৫ লাখ ২৩ হাজার কোটি টাকা * যুবদের 'ব্যবসা উদ্যোগ' সৃষ্টিতে ১০০ কোটি টাকা * পুঁজিবাজারে বিনিয়োগকারীদের করমুক্ত আয়সীমা দ্বিগুন হল * পোশাক শিল্পে প্রণোদনা ২৮২৫ কোটি টাকা * আবারও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত হবে * বাজেটে সবার জন্য পেনশন ব্যবস্থা * মুক্তিযোদ্ধাসহ ভাতা বাড়ল যাদের * করমুক্ত আয়ের সীমা থাকছে আগের মতোই * প্রবৃদ্ধির লক্ষ্য ৮ দশমিক ২০ * করদাতার সংখ্যা শিগগির এক কোটিতে নেওয়া হবে: অর্থমন্ত্রী * বাজেট কর্মমুখী, আছে কিছু হতাশাও *
     27,2018 Sunday at 08:51:12 Share

১২ লাখ কোটি টাকার বিকল্প বাজেট প্রস্তাব অর্থনীতি সমিতির

১২ লাখ কোটি টাকার বিকল্প বাজেট প্রস্তাব অর্থনীতি সমিতির

বাংলাদেশ অর্থনীতি সমিতি ১২ লাখ ১৬ হাজার ৪০০ কোটি টাকার বিকল্প বাজেট পেশ করেছে। এটি অর্থমন্ত্রী আগামী ২০১৮-১৯ অর্থবছরের জন্য ৪ লাখ ৬০ হাজার কোটি টাকার যে বাজেট প্রস্তাব করতে যাচ্ছেন, তার চেয়ে আড়াই গুণেরও বেশি। 

 

বিকল্প বাজেট প্রস্তাবের ৯ লাখ ৯০ হাজার ৮২০ কোটি টাকার যোগান আসবে সরকারের রাজস্ব আয় থেকে, যা মোট বাজেটের ৮১ শতাংশ। এর মধ্যে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) নিয়ন্ত্রিত কর ৭ লাখ ২৯ হাজার ৮৭০ কোটি টাকা, এনবিআর বহির্ভূত কর ২ লাখ ৬০ হাজার ৯৫০ কোটি টাকা এবং অবশিষ্ট ২ লাখ ২৫ হাজার ৫৮০ কোটি টাকা ঘাটতি অর্থায়ন দেখানো হয়েছে।

 

শনিবার রাজধানীর জাতীয় প্রেস ক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. আবুল বারকাত এ বাজেট পেশ করেন।

 

এ সময় সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক ড. জামালউদ্দিন আহমেদ, সহসভাপতি এ জেড এম সালেহ ও মো. আব্দুল হান্নান, কোষাধ্যক্ষ মো. মোস্তাফিজুর রহমান সরদার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

অর্থনীতি সমিতি চতুর্থ বারের মত বিকল্প বাজেট পেশ করল। এবারের বাজেট প্রস্তাবের শিরোনাম ‘মুক্তিযুদ্ধের চেতনার বাংলাদেশ বিনির্মাণে বাংলাদেশ অর্থনীতি সমিতির বাজেট প্রস্তাবনা ২০১৮-১৯’।

 

মুক্তিযুদ্ধের চেতনার দেশ বিনির্মাণে এই বাজেট যুক্তিসঙ্গত দাবি করে আবুল বারকাত বলেন, ‘আমাদের প্রস্তাবিত বাজেট দ্রুত সম্প্রসারণ বৃহদায়তন বাজেট। এটি দেশের অর্থনীতির অন্তর্নিহিত শক্তির বিচারে যৌক্তিক, নৈতিক, মানবিক এবং সব বিচারে বাস্তবায়ন সম্ভব। এর দ্বারা দেশের দ্রুত উন্নয়ন, উন্নত বাংলাদেশ ও বৈষম্যহীন সমাজ গড়া সম্ভব।’

 

তিনি বৃহদায়তন এই বাজেটের ৯ লাখ ৯০ হাজার ৮২০ কোটি টাকার রাজস্ব আয়ের পাশাপাশি ঘাটতি অর্থায়নের ২ লাখ ২৫ হাজার ৫৮০ কোটি টাকার যোগান কোথা থেকে আসবে সে বিষয়ে বিস্তারিত তুলে ধরেন।

 

প্রস্তাবনায় বলা হয়-ঘাটতি অর্থায়নের ১ লাখ কোটি টাকা যোগান দেবে সম্মিলিতভাবে সরকারি-বেসরকারি যৌথ অংশীদারিত্ব। এ ছাড়া বন্ড বাজার থেকে ৪৫ হাজার ৫৮০ কোটি, সঞ্চয়পত্রের ঋণ গ্রহণ ৬০ হাজার কোটি এবং দেশীয় ব্যাংক থেকে ঋণ ২০ হাজার কোটি টাকার যোগান আসবে। এই প্রস্তাবে বৈদেশিক ঋণের কোন ভূমিকা নেই, যা চলতি বাজেটের ঘাটতি পূরণে ৪৩ শতাংশ ভূমিকা রেখেছে।

 

বাজেটের ব্যয় বরাদ্দের কাঠামোতে গুণগত পরিবর্তনের প্রয়োজন উল্লেখ করে অর্থনীতি সমিতির সভাপতি বলেন, মোট বরাদ্দ ও আনুপাতিক বরাদ্দের উন্নয়ন বাজেট হবে অনুন্নয়ন বাজেটের চেয়ে অনেক বেশি যা এখন ঠিক উল্টো। এখন উন্নয়ন-অনুন্নয়ন বাজেট বরাদ্দের ৩৯:৬১ শতাংশ। যা প্রস্তাবিত বাজেটে হবে ৫৫:৪৫।

 

তিনি বলেন, ‘আমাদের প্রস্তাবনায় অনুন্নয়ন বাজেট বরাদ্দ এখনকার তুলনায় অনেক বৃদ্ধি পাবে। কারণ আমরা ব্যাপকভাবে কর্মসংস্থান বৃদ্ধি যৌক্তিক মনে করি যেখানে বেতন-ভাতা ও সংশ্লিষ্ট বরাদ্দ অনুন্নয়ন বাজেটভুক্ত।’ 

 

আবুল বারকাত বাজেট বাস্তবায়নের কার্যকারিতা বৃদ্ধির জন্য প্রত্যেক মন্ত্রণালয় ও সরকারি বিভাগের যথাযথ দায়িত্ব পালনের গুরুত্ব তুলে ধরেন। অন্যথায় তাদের শাস্তির বিধান দাবি করেন।

 

প্রস্তাবিত বিকল্প বাজেটে শিক্ষাখাতে ব্যয় বরাদ্দ ধরা হয়েছে ২ লাখ ৬৪ হাজার ৮০৫ কোটি টাকা। এই বরাদ্দের ৫৮ শতাংশ অর্থ প্রাথমিক ও গণশিক্ষা এবং মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা খাতে ব্যয় করার কথা বলা হয়েছে। এরপর ২ লাখ ৫২ হাজার ৩০০ কোটি টাকা বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতে,জনপ্রশাসন খাতে ২ লাখ ৪৫ হাজার ৪৬৮ হাজার কোটি, পরিবহন ও যোগাযোগ খাতে ১ লাখ ২৮ হাজার ৭০০ কোটি টাকা, স্বাস্থ্যখাতে ৮৪ হাজার ৯৫০ কোটি টাকা এবং সামাজিক নিরাপত্তাখাতে ৭২ হাজার ৬০০ কোটি টাকা বরাদ্দের প্রস্তাব করা হয়।

 

বাজেট প্রস্তাবনায় এনবিআরের কর বর্হিভূত সরকারের আয়ের উৎস হিসেবে অর্থপাচার রোধ থেকে ৩০ হাজার কোটি এবং কালো টাকা উদ্ধার করে ২৫ হাজার টাকা আহরণ সম্ভব বলে উল্লেখ করা হয়। বাসস।

 

User Comments

  • ব্যবসা ওঅর্থনীতি