১৯ মার্চ ২০১৯ ৬:০:৩২
logo
logo banner
HeadLine
নিউ জিল্যান্ডে ভ্রমণ সতর্কতা জারি করেছে বাংলাদেশ * নির্বাচন শেষে ফেরার পথে বাঘাইছড়িতে গুলিতে প্রিজাইডিং অফিসারসহ নিহত ৬ * '৩০ সেকেন্ড এদিক-ওদিক হলেই আমাদের লাশ দেশে ফিরতো' * বাংলাদেশের বিপ্লব, স্বাধীনতা সংগ্রাম এবং জাতির পিতার নেতৃত্ব * যেখানে জনক তুমি মৃত্যুঞ্জয়ী * বঙ্গবন্ধুর জন্মদিনে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা * বাঙালির একমাত্র মহানায়ক * ক্রাইস্টচার্চে হামলায় রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শোক এবং নিন্দা, সারাদেশে নিরাপত্তা জোরদার * ক্রাইস্টচার্চে হামলায় ৩ বাংলাদেশীসহ নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৪৯ * বিশ্বজুড়ে ফেইসবুক ব্যবহারে সমস্যা হচ্ছে * একদিনে চার রকম কথা বললেন নুর * রোহিঙ্গাদের কোথায় রাখা হবে তা বাংলাদেশের নিজস্ব বিষয় * শিক্ষার জন্য শিশুদের অতিরিক্ত চাপ দেওয়া উচিত নয়: প্রধানমন্ত্রী * ওবায়দুল কাদেরের অবস্থার আরও উন্নতি, আইসিইউ থেকে নেয়া হয়ছে কেবিনে * ডাকসু নির্বাচন : ভিপি নুর, জিএস রাব্বানী * সিইসির খন্ডিত বক্তব্য নিয়ে বিতর্ক করা উচিত নয় - মাহবুব-উল আলম হানিফ * প্রথম ধাপের উপজেলা নির্বাচন: আ.লীগ ৫৫, অন্যান্য ২৩, স্থগিত ৯ * আহমদ শফীকে নিয়ে মেননের বক্তব্য একপাঞ্জ চাইলেন কাজী ফিরোজ রশীদ * ডাকসু নির্বাচন কাল: একনজরে প্যানেল পরিচিতি * আত্মত্যাগ ছাড়া কোনো কিছু অর্জন সম্ভব না : প্রধানমন্ত্রী * লাইফটাইম কন্ট্রিবিউশন ফর উইমেন এম্পাওয়ারমেন্ট পদক পেলেন শেখ হাসিনা * চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার ঘিরে উন্নয়ন মহাযজ্ঞ, খুলে যাচ্ছে বিনিয়োগের অফুরান দুয়ার * ৩৫ বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ চেয়ে সৌদির সাথে বিদ্যুত, জ্বালানি ও জনশক্তিসহ কয়েকটি এবং সমঝোতা স্মারক সই * কৃত্রিম সাপোর্ট ছাড়াই স্বাভাবিকভাবে কাজ করছে ওবায়দুল কাদেরের হৃদপিন্ড * ৭ মার্চের ভাষণে বঙ্গবন্ধুর আত্মপ্রত্যয়ের স্বরূপ * ওবায়দুল কাদেরের অবস্থার কিছুটা উন্নতি, করা হবে বাইপাস সার্জারি * সংসদ সদস্যরা নিজস্ব নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বিগ্ন, গানম্যান চেয়েছেন ৫০ এমপি * যুদ্ধ যুদ্ধ উত্তেজনা ও আমাদের সামাজিক আচরণ * হৃদরোগে সঙ্কটাপন্ন ওবায়দুল কাদের * শাসক নয়, সেবক হিসেবে কাজ করে যাচ্ছি: প্রধানমন্ত্রী *
     21,2018 Tuesday at 09:33:04 Share

কাল পবিত্র ইদ উল আযহা

কাল পবিত্র ইদ উল আযহা

আজ রাত পোহালেই আগামী কাল  আমাদের দেশে যথাযোগ্য মর্যাদায় পালিত হবে পবিত্র ঈদুল আজহা বা কোরবানির ঈদ। ত্যাগের মহিমা ও উৎসব আমেজে সমৃদ্ধ এ ঈদ পালনে প্রস্তুত সারাদেশের মুসলমানরা। পশু কোরবানিই এ ঈদের ইবাদত। এর আগে ঈদের নামাজে ধনী গরিব নির্বিশেষে একই কাতারে শামিল হয়ে মহান স্রষ্টার সান্নিধ্য কামনা করবেন। নামাজ আদায়ের পরপরই পশু কোরবানির জন্য ব্যস্ত হয়ে উঠবেন মুসলমানরা। এরপর গরিবের মাঝে মাংস বিতরণের মধ্যদিয়ে কোরবানির মহান আদর্শ সবার মাঝে সমানভাবে ছড়িয়ে দেয়ার দৃষ্টান্ত স্থাপন করবেন বরাবরের মতো।


ঈদুল আজহা একদিকে যেমন সৃষ্টিকর্তার কাছে নিজেকে সমর্পণ, অন্যদিকে কোরবানির মাংস বণ্টনের মাধ্যমে ধনী গরিবের আত্মিক মিলনও।


ঈদুল আজহাকে ঘিরে চারদিকে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা এবং উৎসবের আমেজ। ঈদের দিন সকালে পশু কোরবানি দেয়ার জন্য ইতোমধ্যে অধিকাংশ কোরবানিদাতা নিজেদের পছন্দের পশু কিনে ফেলেছেন। অনেকে আজ মঙ্গলবার শেষমুহূর্তে পশু ক্রয় করবেন। কারণ বাসায় রাখার ঝামেলা থেকে বাঁচতে অনেকে একেবারে শেষ মুহূর্তে কোরবানির পশু কিনেন। পাশাপাশি গরু জবাই সংক্রান্ত আনুষঙ্গিক প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে কসাই ঠিক করা নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন। সবমিলে গরু কেনাকাটা সাঙ্গ করা, কোরবানিদাতারা মাংস কাটার সময় ব্যবহৃত গুঁড়ি, দা, ছুরিসহ প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র সংগ্রহে রয়েছেন। শহর গ্রাম সবখানেই ঈদের আমেজ। শহরে বসবাস করা অধিকাংশ মানুষ গ্রামে ছুটে গেছেন ঈদ করার জন্য। গ্রামে যারা ঈদ করবেন পশু কেনাকাটার কাজটি তারা সেখানেই সম্পন্ন করার জন্য ছুটছেন।


প্রতি জিলহজ মাসের ১০ তারিখে ত্যাগ ও আনন্দের বার্তা নিয়ে মুসলমানদের দুয়ারে হাজির হয় ঈদুল আজহা। আল্লাহর বিধান অনুযায়ী তার নৈকট্য ও সন্তুষ্টি লাভের উদ্দেশ্যে নির্দিষ্ট পশু কোরবানি করবেন সামর্থ্যবান প্রত্যেক মুসলমান। প্রায় সাড়ে ৪ হাজার বছর আগে হজরত ইবরাহিম (আ.) মহান আল্লাহ তায়ালার নির্দেশে নিজের সবচেয়ে প্রিয় পাত্র পুত্র হজরত ইসমাঈলকে (আ.) কোরবানি করার উদ্যোগী হন। গলায় ছুরিও চালানো হয়। কিন্তু আল্লাহর কুদরতে হজরত ইসমাঈল (আ.) এর পরিবর্তে দুম্বা কোরবানি হয়ে যায়। সেই থেকেই চালু হয় কোরবানিতে পশু জবাই করার বিধান। ইবরাহিম (আ.) এর সেই ত্যাগের মহিমা স্মরণ করে মুসলমানরা প্রতিবছর জিলহজ মাসের ১০ তারিখে আল্লাহর অনুগ্রহ কামনায় পশু কোরবানি করেন। সামর্থ্যবান প্রত্যেক মুসলমানের জন্য কোরবানি করা ওয়াজিব। ১১ ও ১২ জিলহজও পশু কোরবানি করার সুযোগ রয়েছে। কোরবানির মধ্য দিয়ে নিজের ভেতরের পশুত্বকে পরিহার করা এবং হজরত ইবরাহিম (আ.) এর মহান আত্মত্যাগের আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে কোরবানির দিনের শুরুতেই সবাই ঈদগাহে যাবেন ঈদুল আজহার দুই রাকাত ওয়াজিব নামাজ আদায় করতে। নামাজ শেষে খুতবার পর আনন্দের দিনে অশ্রুসিক্ত হয়ে চিরকালের জন্য চলে যাওয়া স্বজনদের আত্মার মাগফিরাত কামনায় আল্লাহর দরবারে কড়জোরে মোনাজাত করবেন। ধনী–গরিবের ভেদাভেদ ভুলে এক সঙ্গে নামাজ আদায়ের পর শুরু হবে ঈদের দিনের সবচেয়ে মনোরম পর্ব কোলাকুলি। ঈদের নামাজ শেষে আল্লাহ তায়ালার উদ্দেশে পশু কোরবানি এ ঈদের প্রধান কর্তব্য।

User Comments

  • ধর্ম ও নৈতিকতা