২১ জুন ২০১৯ ৫:৩১:৩১
logo
logo banner
HeadLine
সবাইকে তিনটি করে গাছ লাগানোর আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর * ৩০ জুন সন্দ্বীপ পৌরসভার বাজেট উপস্থাপন * প্রবৃদ্ধিতে এশিয়া-প্যাসিফিকে শীর্ষে বাংলাদেশ: এডিবি * চলতি অর্থবছরের ১৫ হাজার ১৬৬ কোটি টাকার সম্পূরক বাজেট পাস * সন্দ্বীপ পৌরসভায় বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা আন্তঃপ্রাথমিক বিদ্যালয় গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট-২০১৯ উদ্ভোধন * দূর্দান্ত জয় টূর্ণামেন্টে ফিরল টাইগাররা * ৩২২ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করছে বাংলাদেশ * টিকে থাকার ম্যাচে টস জিতে ফিল্ডিংয়ে বাংলাদেশ, একাদশে লিটন * ব্যাংকে টাকা আছে তবে লুটে খাওয়ার টাকা নেই: সংসদে প্রধানমন্ত্রী * সামনে দেশী-বিদেশী নানা চক্রান্ত ষড়যন্ত্র, ওসব মোকাবেলায় প্রস্তুত থাকুন - প্রধানমন্ত্রী * চট্টগ্রামে বিশ্বমানের সেবা নিয়ে আজ যাত্রা শুরু করছে ইম্পেরিয়াল হাসপাতাল * ঋণের সুদের হার সিঙ্গেল ডিজিটে নামিয়ে না আনলে কঠোর ব্যবস্থার হুশিয়ারি * পত্রিকা-টিভির মালিকদের ঋণের খবর নিতে বললেন প্রধানমন্ত্রী * অনলাইন নিউজ পোর্টাল নিবন্ধনের তাগিদ প্রধানমন্ত্রীর * ২০৩০ সালের মধ্যে ৩ কোটি যুবকের কর্মসংস্থান করা হবে * নির্বাচনী ইশতেহার অনুযায়ী 'আমার গ্রাম আমার শহর' বাস্তবায়নে ৬৬২৩৪ কোটি টাকা * এই বাজেটে ধনী ও ব্যবসায়ী গোষ্ঠীর স্বার্থ রক্ষা করছে সরকার: বিএনপি * এ বাজেট জনকল্যাণমুখী: বাজেট পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী * ২০১৯-২০ বাজেট বক্তৃতায় দেশের অগ্রগতি ও উন্নয়নের ইতিবাচক কিছু তথ্য * একনজরে স্বাধীন বাংলাদেশের সকল বাজেট : ৭৮৬ কোটি থেকে ৫ লাখ ২৩ হাজার কোটি টাকা * যুবদের 'ব্যবসা উদ্যোগ' সৃষ্টিতে ১০০ কোটি টাকা * পুঁজিবাজারে বিনিয়োগকারীদের করমুক্ত আয়সীমা দ্বিগুন হল * পোশাক শিল্পে প্রণোদনা ২৮২৫ কোটি টাকা * আবারও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত হবে * বাজেটে সবার জন্য পেনশন ব্যবস্থা * মুক্তিযোদ্ধাসহ ভাতা বাড়ল যাদের * করমুক্ত আয়ের সীমা থাকছে আগের মতোই * প্রবৃদ্ধির লক্ষ্য ৮ দশমিক ২০ * করদাতার সংখ্যা শিগগির এক কোটিতে নেওয়া হবে: অর্থমন্ত্রী * বাজেট কর্মমুখী, আছে কিছু হতাশাও *
     14,2018 Friday at 10:01:33 Share

এমপিকে দেখে উপজেলা পরিষদের সভা বর্জন করলেন ইউপি চেয়ারম্যানরা

এমপিকে দেখে উপজেলা পরিষদের সভা বর্জন করলেন ইউপি চেয়ারম্যানরা

নরসিংদীর শিবপুরে স্থানীয় সংসদ সদস্যের উপস্থিতি দেখে উপজেলা মাসিক সমন্বয় পরিষদের সভা বর্জন করেছেন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানরা। বৃহস্পতিবার (১৩ সেপ্টেম্বর) বেলা ১১টায় উপজেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষে এই সমন্বয় সভায় ১৫ সদস্যের মধ্যে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যান উপস্থিত থাকলেও বাকি ১৩ জন অংশ নেননি।


নরসিংদী-৩ (শিবপুর) আসনের সংসদ সদস্য সিরাজুল ইসলাম মোল্লা উপজেলার ইউপি চেয়ারম্যানদের উন্নয়ন বরাদ্দ না দেওয়ার ক্ষোভে সমন্বয় সভা বর্জনের ঘটনা ঘটেছে বলে জানিয়েছেন জনপ্রতিনিধিরা। পরে কোরাম না হওয়ায় এই সভা মুলতবি করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আরিফুল ইসলাম মৃধা।


একাধিক ইউপি চেয়ারম্যানের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, শিবপুর উপজেলার ৯টি ইউনিয়ন পরিষদের মধ্যে ৭টিতেই আওয়ামী লীগের দলীয় চেয়ারম্যান, বাকি দু’টিতে বিএনপির। বর্তমান স্বতন্ত্র নির্বাচিত সংসদ সদস্য (কেন্দ্রীয় যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য) সিরাজুল ইসলাম মোল্লা পদাধিকার বলে উপজেলা মাসিক সমন্বয় পরিষদের প্রধান উপদেষ্টা। এই কমিটির মোট সদস্য সংখ্যা ১৫ জন।


ইউপি চেয়ারম্যানরা অভিযোগ করে বলেন, স্বতন্ত্র হিসেবে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে সিরাজুল ইসলাম মোল্লার সঙ্গে শিবপুর উপজেলা আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের দূরত্ব সৃষ্টি হয়। এছাড়া বিগত দিনগুলোতে টিআর, কাবিখাসহ বিভিন্ন উন্নয়ন বরাদ্দ উপজেলার ইউনিয়ন পরিষদগুলোতে না দেওয়ায় চেয়ারম্যানরা বিক্ষুব্ধ হয়ে আছেন। সংসদ সদস্য তার নিজস্ব লোকদের দিয়ে এসব বরাদ্দ খরচ করছেন।


জয়নগরের ইউপি চেয়ারম্যান নাদিম সরকার বলেন, ‘দলীয় চেয়ারম্যান হয়েও আড়াই বছরে সংসদ সদস্য সিরাজুল ইসলাম মোল্লা সাহেবের কাছ থেকে টিআর, কাবিখার মতো কোনও উন্নয়ন বরাদ্দ পাইনি। তিনি নিজস্ব লোক আর আওয়ামী লীগের বাইরের লোকদের দিয়ে কাজ করান। আমাদের ইউনিয়নে কোনও কাজ করতে এলেও তিনি আমাদের ডাকেন না। আজকের বর্জনের মাধ্যমে এর নীরব প্রতিবাদ জানানো হয়েছে।’


এ প্রসঙ্গে শিবপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শীলু রায় বলেন, ‘সভার প্রধান উপদেষ্টা, সভাপতিসহ বিভিন্ন দফতরের কর্মকর্তারা সভায় উপস্থিত ছিলেন কিন্তু কোনও ইউপি চেয়ারম্যান উপস্থিত ছিলেন না।’ পরবর্তীতে এই সভা আবার হবে জানিয়ে এ বিষয়ে কোনও মন্তব্য করতে রাজি হননি তিনি।


সংসদ সদস্য সিরাজুল ইসলাম মোল্লা বলেন, ‘সভার সভাপতি উপজেলা চেয়ারম্যান এবং মিটিং ডেকেছেন ইউএনও। তারপরেও ইউপি চেয়ারম্যানরা কেন অংশ নিলেন না, এই প্রশ্ন আমারও। আমি তো মাত্র উপদেষ্টা। শুনেছি, বিভিন্ন অজুহাত দেখিয়েছেন ইউপি চেয়ারম্যানরা।’


তিনি আরও বলেন, ‘ইউনিয়নের জন্য কোনও উন্নয়ন বরাদ্দ আমার কাছে নেই, আছে উপজেলা চেয়ারম্যানের কাছে। তারপরও যদি কিছু চাওয়ার থাকে তবে চেয়ারম্যানরা আমার সঙ্গে সরাসরি কথা বলতে পারেন। আর আমার নিজের কোনও লোক নেই, আমি শিবপুরের জনগণকে নিয়েই কাজ করছি।’ বাংলাট্রিবিউন।

User Comments

  • সারাদেশ