২০ জানুয়ারি ২০১৯ ১৫:১৫:২২
logo
logo banner
HeadLine
দুর্নীতি, জঙ্গিবাদ, মাদক, সন্ত্রাস দূর করতে হবে: সোহরাওয়ার্দীর বিজয় সমাবেশে প্রধানমন্ত্রী * ক্ষুধা ও দারিদ্রমুক্ত উন্নত সমৃদ্ধ সোনার বাংলা বিনির্মাণে সকলের সযোগিতা চাইলেন প্রধানমন্ত্রী * হজযাত্রীদের বিমান ভাড়া কমানোর ঘোষণায় প্রধানমন্ত্রীকে 'হাব' এর অভিনন্দন * ২৭শ' ইউনিয়নে বিনামূল্যে তিন মাস ইন্টারনেট * আজ সোহরাওয়ার্দীতে আওয়ামী লীগের বিজয় সমাবেশ * এরশাদের অবর্তমানে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদের * সাভারে ধর্ষণ মামলার মুল আসামির গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার * 'সুযোগ-সুবিধা বাড়ানো হয়েছে, এখন দুর্নীতি করলে ছাড় দেওয়া হবে না' * প্রধানমন্ত্রীর নামে ৬টি ভুয়া ফেসবুক পেইজসহ ৩৬টি পেইজ চালাতেন ফারুক * কোচিং বাণিজ্য বন্ধসহ ৫ নির্দেশনা দিলেন শিক্ষামন্ত্রী * নির্বাচন নিয়ে টিআইবির প্রতিবেদন রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত - তথ্যমন্ত্রী * টিআইবির প্রতিবেদন ভিত্তিহীন - সিইসি * সরকারের শুরুতেই সুশাসন প্রতিষ্ঠার কার্যক্রম শুরু * বিশ্বের বৃহত্তম দোসা বানালেন চেন্নাইয়ের একদল রাঁধুনি * কমোডের চেয়েও বেশি জীবাণু স্মার্টফোনে! * সংরক্ষিত আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম বিক্রি শুরু * অস্থির বাজারেও চালের দাম কমছে খাতুনগঞ্জে * ২৮ জানুয়ারির মধ্যে নবম ওয়েজবোর্ডের প্রজ্ঞাপন জারি: তথ্যমন্ত্রী * মালিক-শ্রমিক-সরকার ত্রিপক্ষীয় বৈঠক, ৬ গ্রেডে বেতন বাড়ল পোশাকশ্রমিকদের * দুর্নীতি, সন্ত্রাস ও মাদকের বিরুদ্ধে লড়াই চলবে: প্রধানমন্ত্রী * সারাদেশে ছড়িয়ে পড়ছে রোহিঙ্গারা, কাঁটাতারের বেড়া দিয়ে এলাকা আটকানোর পরিকল্পনা * গণতন্ত্রের স্বার্থে সংসদে আসা উচিত : প্রধানমন্ত্রী * নতুন সরকার ও দল শক্তিশালী করতে করণীয় নিয়ে কেন্দ্রীয় নেতাদের সঙ্গে আজ প্রধানমন্ত্রীর বৈঠক * আগামী ৫ দিন দেশব্যাপী বইবে মৃদু থেকে মাঝারী শৈত্যপ্রবাহ থাকবে কুয়াশাও * ওরা যেন আর ফিরে না আসে - নির্বাচনে অগ্নিসন্ত্রাসীদের প্রত্যাখ্যান প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী * জাতির পিতার সমাধিতে প্রধানমন্ত্রী ও মন্ত্রিসভা সদস্যদের শ্রদ্ধা * আজ জাতিরপিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস * পোশাক শ্রমিকদের বিক্ষোভ অব্যাহত, অনির্দিষ্টকালের জন্য কারখানা বন্ধ, বিজিবি মোতায়েন * একাদশ জাতীয় সংসদের প্রথম অধিবেশন বসছে ৩০ জানুয়ারি * সন্দ্বীপে গুলিতে শীর্ষ সন্ত্রাসী কালা মনির নিহত *
     08,2018 Thursday at 10:02:39 Share

চট্টগ্রাম জেলা ও মহানগরের সাড়ে ৩ হাজার সন্ত্রাসী : বাঁশখালি ও সন্দ্বীপে রয়েছে অস্ত্র তৈরির একাধিক কারখানা , শীঘ্রই বিশেষ অভিযান

চট্টগ্রাম জেলা ও মহানগরের সাড়ে ৩ হাজার সন্ত্রাসী : বাঁশখালি ও সন্দ্বীপে রয়েছে অস্ত্র তৈরির একাধিক কারখানা , শীঘ্রই বিশেষ অভিযান

আসন্ন সংসদ নির্বাচনের আগে ও পরে বিভিন্নভাবে সহিংস এবং সশস্ত্র সন্ত্রাসে লিপ্ত হতে পারে এমন সাড়ে ৩ হাজার সন্ত্রাসীর তালিকা করা হয়েছে চট্টগ্রাম মহানগরী ও জেলার ১৪ উপজেলার ১৬টি থানাজুড়ে। জেলার বাঁশখালি ও সন্দ্বীপে রয়েছে অস্ত্র তৈরির একাধিক কারখানাও।
পুলিশসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর চলমান তৎপরতার পাশাপাশি চিহ্নিত এসব সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার অভিযান শুরু হচ্ছে বলে জানানো হয়েছে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ (সিএমপি) ও জেলা পুলিশ সুপার দফতর সূত্রে।
সূত্র জানায়, রাজনৈতিক অঙ্গনে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের সঙ্গে যুক্ত থাকা এমন কিছু অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীর অপতৎপরতা রয়েছে। আবার এসব সন্ত্রাসীরা অর্থের বিনিময়ে ভাড়ায় খেটে থাকে। সিএমপি ও জেলা পুলিশ আগামী নির্বাচনকে সামনে রেখে এ জাতীয় অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীদের একটি তালিকা করেছে। এ তালিকায় সরকারী দল সমর্থনের ব্যানারের সন্ত্রাসীও রয়েছে। গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে সিএমপি ও জেলা পুলিশ প্রশাসন সম্প্রতি এ জাতীয় সন্ত্রাসীদের একটি তালিকা সম্পন্ন করেছে। উভয় প্রশাসন সমন্বয় করে প্রণীত তালিকার ভিত্তিতে এদের বিরুদ্ধে অভিযান চালাবে। প্রশাসন আশা করছে এতে অবৈধ অস্ত্র যেমন উদ্ধার হবে তেমনি গ্রেফতারের আওতায় আসবে সন্ত্রাসী দলের সদস্যরা।
সূত্র আরও জানিয়েছে, চট্টগ্রাম মহানগর ও জেলাজুড়ে সংসদীয় আসনের সংখ্যা ১৬। এসব আসনে সরকারী দল আওয়ামী লীগ ছাড়াও অন্য রাজনৈতিক দল একক বা জোটগতভাবে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবে। অনেকে স্বতন্ত্রভাবে নির্বাচন করার সম্ভাবনা রয়েছে। সম্ভাব্য প্রার্থীদের পক্ষে ভোট আদায়ের জন্য এসব সন্ত্রাসীরা তৎপর হচ্ছে বলে গোয়েন্দা রিপোর্ট পাওয়ার পর সিএমপি ও জেলা পুলিশ প্রশাসন ইতোমধ্যেই আসনভিত্তিক সংশ্লিষ্ট সন্ত্রাসীদের তালিকা করেছে। সিএমপি কমিশনার মাহবুবর রহমান ও জেলা পুলিশ সুপার নুরে আলম মিনা বুধবার সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, সন্ত্রাসী তৎপরতাবিরোধী অভিযান চলমান রয়েছে। তবে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন ঘনিয়ে আসায় আইনশৃঙ্খলা ব্যবস্থা স্বাভাবিক রাখতে অভিযান জোরালো হবে। আইন বহির্ভূত কর্মকান্ডে বিশেষ করে অবৈধ অস্ত্রধারীরা যাতে কোনভাবে তাদের প্রভাব বিস্তার করতে না পারে সে লক্ষ্যে অভিযান হবে জোরদার। এক্ষেত্রে চিহ্নিতদের খুঁজে বের করার চেষ্টা চলবে। উভয় প্রশাসন আশা করছে, এক্ষেত্রে সুফল যে আসবে তা নিশ্চিত। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে কোনভাবে পরিস্থিতি অস্থিতিশীল করতে দেয়া যাবে না।
সূত্র মতে, নির্বাচন উপলক্ষে প্রতিটি এলাকায় প্রার্থীদের সভা সমাবেশ ক্রমাগতভাবে বেড়ে যাবে। এ সময় রাজনীতির মাঠে আধিপত্য বিস্তারের চেষ্টা চালানোর সম্ভাবনাও রয়েছে। এসব বিষয়কে মাথায় রেখে সন্ত্রাসী ও সম্ভাব্য অস্ত্রধারীদের তালিকা করা হয়েছে। অতীতের রেকর্ড পর্যালোচনা করে রাজনীতির নামে যারা সহিংস সন্ত্রাসে তৎপর হয় এদের সংখ্যাই এ তালিকায় বেশি। তালিকায় সরকারী দল সমর্থিত প্রায় ৮০ জনের নামও রয়েছে, যাদের অতীত ভূমিকা আইনশৃঙ্খলার জন্য হুমকি হিসেবে মনে করা হচ্ছে। ফলে এদের কাউকে ছাড় না দেয়ার লক্ষ্য নিয়ে সিএমপি ও জেলা পুলিশ প্রশাসন সহসা এ অভিযান শুরু করবে বলে ধারণা দেয়া হয়েছে। এ বিষয়ে ইতোমধ্যে সরকারের উচ্চ মহলের গ্রিন সিগন্যাল নেয়া হয়েছে। যাতে করে সরকার দলীয় ব্যানার ব্যবহার করে সন্ত্রাসীরাও মঠে নামার সাহস না পায়। এছাড়া অন্যান্য রাজনৈতিক দলের সঙ্গে এবং তাদের পৃষ্ঠপোষকতায় যেসব সন্ত্রাসী রয়েছে তাদের চিহ্নিত করা হয়েছে, যাতে করে সন্ত্রাসমুক্ত পরিবেশে একটি অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন সম্পন্ন করা যেতে পারে। জনকণ্ঠ।

User Comments

  • চট্টগ্রাম