১৯ এপ্রিল ২০১৯ ১৪:৩৭:১৯
logo
logo banner
HeadLine
শিরক এবং এর থেকে বেঁচে থাকার উপায় * দুর্যোগ-দুর্ঘটনায় করণীয়গুলো ভালোভাবে প্রচারের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর * সন্দ্বীপ পৌরসভায় ১২৫ সেট সেনেটারী লেট্রিন বিতরণ * সেবামূলক প্রতিষ্ঠান হিসাবে সেবাই আমাদের ব্রত- জাফর উল্যা টিটু * আজ ১৭ এপ্রিল : বাংলাদেশের প্রথম সরকারের শপথ গ্রহণ দিবস * ২১ এপ্রিলেই শবে বরাত * বিশ্বকাপে বাংলাদেশ দল ঘোষণা * চট্টগ্রামের শিক্ষার্থীদের জন্য প্রধানমন্ত্রীর ১০ বাস উপহার * নুসরাতকে পোড়ানোতে সরাসরি জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে নুর উদ্দিন ও শামীম * উন্নত-সমৃদ্ধ দেশ গড়তে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর * আজ পহেলা বৈশাখ, শুভ নববর্ষ ১৪২৬ * নুসরাত হত্যা : পরিকল্পনায় সিরাজউদ্দৌলা, জড়িত ১৩,আগুন দেয় ৪ জন * চারদিনের সফরে ঢাকায় ভুটানের প্রধানমন্ত্রী, লালগালিচা সংবর্ধনা * ১২ এপ্রিল, ১৯৭১ : মুজিবনগর সরকারের মন্ত্রিসভার নাম ঘোষণা * মুজিববর্ষ ও বাঙালীর রাষ্ট্র দিবস * প্রথমবারের মতো কৃষ্ণগহ্বরের ছবি দেখলো মানব জাতি * তিন লাখ টাকা মুক্তিপনের জন্য ডেমরার মাদ্রাসাছাত্র শিশু মিনরকে হত্যা করে মাদ্রাসার অধ্যক্ষ * গায়ে কেরোসিন দিয়ে আগুন ধরিয়ে দেয়া সোনাগাজীর মাদ্রাসাছাত্রী সেই নুসরাতকে বাঁচানো গেল না * বঙ্গবন্ধু ও সত্যবাদী আদর্শ * সবক্ষেত্রে এগিয়ে যাওয়ার একমাত্র পথ গবেষণা - প্রধানমন্ত্রী * চট্টগ্রামে চালু হচ্ছে বিশ্বমানের হাসপাতাল * অগ্নিনিরাপত্তা নিয়ে শিগগিরই বৈঠক ডাকা হবে * ২২ বছর পর সেন্টমার্টিনে আবারও বিজিবি মোতায়েন * ২১ এপ্রিল পবিত্র শব-ই-বরাত * বিজিএমইএ নির্বাচনে পুরো প্যানেলসহ বিজয়ী রুবানা হক * খালেদার প্যারোলে মুক্তির আবেদন করলে ভেবে দেখা হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী * সুস্থ হয়ে হাসপাতাল ছাড়লেন ওবায়দুল কাদের * সংঘাত নয় আলোচনার মাধ্যমে রোহিঙ্গাদের নিজ দেশে ফেরানোর প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে - প্রধানমন্ত্রী * সীতাকুন্ড, মিরসরাই ও সোনাগাজী অর্থনৈতিক অঞ্চল নিয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব শিল্পনগরের ভিত্তি স্থাপন * জহিরুল আলম দোভাষ সিডিএ'র নতুন চেয়ারম্যান *
     22,2018 Thursday at 21:47:28 Share

সন্দ্বীপে অপহরিত শিশু জারিফ ২ দিন পর উদ্ধার

সন্দ্বীপে অপহরিত শিশু জারিফ ২ দিন পর উদ্ধার

সন্দ্বীপে ৮ বছরের স্কুল ছাত্র শিশু জারিফকে অপহরণের ২ দিন পর অ্ত্যান্ত বিচক্ষণতায় উদ্ধার করল স্থানীয় চার অনলাইন এক্টিভিস্ট। তারেক, সজিব, শাকিল ও ফিরোজের অক্লান্ত ও বুদ্ধিদীপ্ত অভিযানে জারিফকে ফিরে পেল জ্যাকব-আঞ্জুমান আরা দম্পতি।জারিফ উদ্ধারের পুরো ঘটনাটি সাংবাদিক সারওয়ার সুমন এর ফেইসবুক স্ট্যাটাস থেকে এখানে তুলে দেয়া হল। ‘চার যুবকের বিচক্ষণতায় ফিরে এলো জারিফ’ - শিরোনামে তিনি লিখেন,


 


 “আজকের মধ্যে চার লাখ টাকা দিতে হবে। কাউকে জানানো হলে মেরে ফেলা হবে জারিফকে।’ চিরকুটে এমন একটি লেখা লিখে দেয়া হয়েছিল একটি মোবাইল নম্বর। এরপর চিরকুটটি জারিফের স্কুল ড্রেসের পকেটে রেখে তা পাঠানো হয় তাদের বাড়িতে। বুধবার দিবাগত রাতের কোন এক সময় এই জামা রেখে আসা হয় জারিফদের বাড়ির দরজার সামনে।


সকালে সেই জামা থেকে চিরকুট পেয়ে থানার সাথে যোগাযোগ করে জারিফের বাবা মো. জ্যাকব। তার আগে স্থানীয় চার যুবক তারেক, সজিব, শাকিল ও ফিরোজ চিরকুটে থাকা মোবাইল নম্বরটি সনাক্ত করতে সাহায্য নেয় রবিতে কাজ করা তাদের এক বন্ধুর। সেই বন্ধু আরেক ব্যাংক কর্মকর্তার সহায়তায় নিশ্চিত হয় নাম্বারটি তাহমিনা আক্তার নামে এক মহিলার। আইডি কার্ড বের করে নিশ্চিত করা হয় তাহমিনার বাড়ির ঠিকানাও। দেখা যায় জারিফদের বাড়ির মাত্র এক কিলোমিটার দূরেই সেই অপহরণকারী তাহমিনার বাড়ি।


এরপর তিনভাগে ভাগ হয়ে শুরু হয় অভিযান। সিভিল ড্রেসে পুলিশের একটি দল ছিল নাজির হাটের আশপাশে। তাহমিনার বাড়ির কাছাকাছি আরিফ, পারভেজ ও রাজিবসহ ছিলেন জারিফের বাবা জ্যাকব। আর তারেকসহ সেই চার যুবক যায় তাহমিনার ঘরে। তিন মিনিটের মধ্যেই অন্ধকার এক রুম থেকে কম্বল মোড়ানো অবস্থায় তারা উদ্ধার করে জারিফকে।


প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তাহমিনা জানায়, স্থানীয় ৩-৪ জন যুবক তাকে এই অপহরণ করতে বাধ্য করে। পুলিশ এখন হন্য হয়ে খুঁজছে নেপথ্যের সেই হোতাদের।


একদিন আগে রেকি করে তাহমিনা---
জারিফকে অপহরণ করতে পরিকল্পনা হয়েছে অনেক আগেই। এজন্য বেশ কয়েকবার তাহমিনা জারিফের স্কুল ও বাড়িতে আসা যাওয়া করে। সোমবারও জারিফের স্কুলে যায় তাহমিনা। কিন্তু সেদিন তাকে আনতে স্কুলে গিয়েছিলেন জারিফের এক নিকটাত্মীয়। তাই সোমবার সফল হয়নি তাহমিনা। মঙ্গলবার জারিফকে আনতে কেউ স্কুলে না যাওয়ায় ভ্যানে করে বাড়ি আসতে থাকে সে। এই সুযোগে ভ্যান থেকে নামিয়ে জারিফকে অপহরণ করে তাহমিনা। পুরো বিষয়টি তদারকি করে নেপথ্যে থাকা সেই ৩ -৪ যুবক। তারা জারিফের অপহরণ থেকে শুরু করে পরবর্তী অবস্থাও কাছ থেকে পর্যবেক্ষণ করে। এদেরই একজন জারিফের স্কুল ড্রেসে চিরকুট দিয়ে বুধবার দিবাগত রাতে তা রেখে আসে জারিফদের দরজার সামনে।


যাদের বিচক্ষণতায় উদ্ধার হলো জারিফ--
জারিফকে উদ্ধার করতে গত দুদিন ধরে তৎপর ছিলেন সন্দ্বীপের হাজারো তরুণ। দ্বীপের বিভিন্ন ঘাট থেকে শুরু করে অলিতে গলিতে তল্লাশি চালায় তারা। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও সরব ছিল তারা। এ কারণে অপহরণের পরও জারিফকে অন্যত্র নিয়ে যেতে পারেনি চক্রটি। সবচেয়ে বেশি বিচক্ষণতার পরিচয় দিয়েছে স্থানীয় চার যুবক হান্নান তারেক, সজিব খান, জাহিদ হাসান শাকিল ও ফিরোজ খান পাবেল। তারা চিরকুটে থাকা মোবাইল নম্বরটি সনাক্ত করতে সাহায্য নেয় রবিতে কাজ করা তাদের এক বন্ধুর। সেই বন্ধু আরেক ব্যাংক কর্মকর্তার সহায়তায় বৃহস্পতিবার সকালে নিশ্চিত হয় নাম্বারটি তাহমিনা আক্তার নামে এক মহিলার। আইডি কার্ড এর সুত্র ধরে তারা বের করে তাহমিনার বাড়ির ঠিকানাও। এরপর খোদা বক্স সাইফুল, আরিফ, পারভেজ, রাজিবের সহায়তায় জারিফদের বাড়ির মাত্র এক কিলোমিটার দূরে সেই অপহরণকারী তাহমিনার বাড়ি থেকে উদ্ধার করে জারিফকে।


অন্ধকার ঘরে কম্বল দিয়ে মুড়িয়ে রাখা হতো জারিফকে---
উদ্ধার হওয়ার পর জারিফ তার বাবা মোহাম্মদ জ্যাকব ও মা আঞ্জুমান আরাকে জানায়, তাকে অন্ধকার একটি রুমে কম্বল দিয়ে ঢেকে রাখা হতো। খাটের পাশে লাঠিও রাখা হতো। অপহরনের দিন রাতে তাকে আলু দিয়ে ভাত খেতে দেওয়া হয়। সে নিজে নিজে সেই ভাত খায়। মা বাবা কোথায় জানতে চাইলে বলতো ওরা আসবে একটু পরে। আজ সকাল বেলা তাকে শুধু দুধ খেতে দেয় অপহরণকারী তাহমিনা। ভয়ে বিছানাতেই পশ্রাব করতো জারিফ। আজ যখন তাকে উদ্ধার করা হয় তখনও ভয়ে বিছানাতে প্রশ্রাব করে দিয়েছিলো সে। বাড়িতে আনার পর তার জামা কাপড় পাল্টায় জারিফের মা। জারিফের তিন বছর বয়সি একটি বোন রয়েছে। তার নাম জারা’।


 

User Comments

  • সন্দ্বীপ প্রতিদিন