২৩ মে ২০১৯ ৭:০:০৫
logo
logo banner
HeadLine
আগামী অর্থবছরের জন্য রেকর্ড এডিপি অনুমোদন * স্বাধীনভাবে সবাই নিজ নিজ ধর্ম পালন করবেন: প্রধানমন্ত্রী * ফলের বাজার নজরদারিতে টিম গঠনে হাইকোর্টের নির্দেশ * পুনর্বিন্যাস করা হয়েছে মন্ত্রিপরিষদ: শফিউল আলম * কাল থেকে অফিস করবেন ওবায়দুল কাদের * জঙ্গি সনাক্তকরণের বিজ্ঞাপন সম্প্রীতি বাংলাদেশের নয়: পীযূষ * জনপ্রতি সর্বনিম্ন ফিতরা ৭০ টাকা * সুস্থ হয়ে দেশে ফিরলেন ওবায়দুল কাদের * হাইকোর্টের নির্দেশ, কোন মুক্তিযোদ্ধাকে ভুয়া বলে সম্বোধন করা যাবে না * 'গ্রুপ ২০'তে অভিষিক্ত হচ্ছে বাংলাদেশ * ইতালি যাওয়ার পথে ভূমধ্যসাগরে নৌকাডুবিতে নিহত ২৭ বাংলাদেশির পরিচয় শনাক্ত * বর্তমানে দেশে দারিদ্র্যের হার ২১ দশমিক ৮ শতাংশ * এখনো বিক্রি হচ্ছে নিষিদ্ধ সেই ৫২ পণ্য * এসিআই, তীর, রুপচাঁদা, প্রাণসহ ১৮টি কোম্পানীর ৫২টি মানহীন খাদ্যপণ্য বিক্রি বন্ধে হাইকোর্টের নির্দেশ * বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট দিয়ে সম্প্রচার শুরু হচ্ছে আজ * ১৫ মে দেশে ফিরছেন ওবায়দুল কাদের * লন্ডন সফর শেষে দেশে ফিরলেন প্রধানমন্ত্রী * সৌদি আরবের প্রস্তাবিত ৩৫ বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ আনার প্রক্রিয়া শুরু * বিশ্বের কোথাও মুসলিমরা রোজা রাখছেন ২৩ ঘণ্টা আবার কোথাও সাড়ে ৯ ঘন্টা * খাদ্যের মান নিয়ন্ত্রণের প্রশ্নে বিএসটিআই'র কাজে হাইকোর্টের অসন্তোষ * খাদ্যে ভেজাল ও দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে জিরো টলারেন্স, জনগণকে স্বস্তি দিতে প্রথম রমজান থেকেই অভিযান শুরু * বেসরকারী টেলিভিশনে সংবাদ প্রচারের সময় কোন বিজ্ঞাপন নয় - হাইকোর্ট * পদ্মায় বসল ১২তম স্প্যান, দৃশ্যমান ১৮শ' মিটার * চলে গেলেন সুবীর নন্দী * পবিত্র রমজান মাসের চাঁদ দেখা গেছে, কাল থেকে রোজা শুরু * এস এস সি'তে পাসের হার ৮২.২০% * এসএসসির ফল আজ * প্রধানমন্ত্রীর চোখের অস্ত্রোপচার সম্পন্ন * ফণি' দুর্গতদের দ্রুত ত্রাণ দেয়ার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর * ক্রমশ দুর্বল হয়ে পড়ছে ফণি, বিভিন্ন জেলায় ৫ জনের মৃত্যু, বন্দরসমূহে ৩ নং সতর্ক সংকেত *
     02,2018 Sunday at 08:26:39 Share

মনোনয়নপত্র বাছাই আজ, আসন ৩০০ প্রার্থী ৩০৬৫

মনোনয়নপত্র বাছাই আজ, আসন ৩০০ প্রার্থী ৩০৬৫

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রার্থীদের জমা দেয়া মনোনয়নপত্র বাছাই করা হচ্ছে আজ রবিবার। গত ২৮ নবেম্বর শেষ দিনে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে তিনশ’ আসনে ৩ হাজার ৬৫ প্রার্থী নিজ নিজ এলাকার রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। ইতোমধ্যে কমিশনের পক্ষ থেকে বাছাইয়ে প্রার্থীর যোগ্যতা অযোগ্যতার বিষয়ে রিটার্নিং কর্মকর্তাদের নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। বিশেষ করে দ-প্রাপ্তরা যারা এবারে নির্বাচনে প্রার্থী হতে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন, ইসির নির্দেশনা অনুযায়ী তাদের প্রার্থিতা বাতিল হবে। এছাড়া ঋণখেলাপীরা প্রার্থী হতে পারবেন না। বাছাইতে যারা নির্বাচনে যোগ্য বলে বিবেচিত হবেন তারা ৯ ডিসেম্বর পর্যন্ত প্রার্থিতা প্রত্যাহারের সুযোগ পাবেন।


তবে ইসির নির্দেশনা অনুযায়ী বাছাইয়ে যাদের প্রার্থিতা বাতিল হবে তারা ইচ্ছে করলে প্রার্থিতা ফিরে পেতে কমিশন বরাবর আবেদন করতে পারবেন। এজন্য বাতিলের তিনদিনের মধ্যে আবেদন জানাতে পারবেন। কমিশন তদন্তে প্রার্থিতা বাতিল হলে শেষ আশ্রয় হিসেবে আদালতেও আপিল করা যাবে। তবে আদালত থেকে প্রার্থিতা বাতিল করা হলে তিনি নির্বাচনে অংশ নিতে পারবেন না।


নির্বাচন আইন অনুযায়ী কোন ব্যক্তি কমপক্ষে দুই বছর আদালতের রায়ে সাজাপ্রাপ্ত হলে সাজার মেয়াদ পাঁচ বছর অতিক্রান্ত না হওয়া পর্যন্ত তিনি নির্বাচন করতে পারবেন না। তবে উচ্চ আদালতে আপীল করা হলে আদালত যদি সাজা স্থগিত করে সেক্ষেত্রে তিনি নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারবেন। সম্প্রতি নি¤œ আদালতে দেয়া সাজা স্থগিত করতে বিএনপির পক্ষ থেকে হাইকোর্টে আবেদন জানানো হয়। তাদের আবেদনের প্রেক্ষিতে হাইকোর্ট তাদের আবেদন খারিজ করে দিয়ে বলেছে, কারো দুই বছরের বেশি সাজা হলে তিনি নির্বাচনে অংশ নিতে পারবেন না।


ইতোমধ্যে বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়াসহ দলটির হ্যাভিওয়েট প্রার্থীরা নির্বাচনে অংশ নিতে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। অথচ এসব নেতাদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন মামলায় সাজা ঘোষণা করা হয়েছে। নির্বাচনের জন্য খালেদা জিয়ার বগুড়া ফেনীসহ মোট তিনটি আসনে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন প্রতিনিধির মাধ্যমে। কিন্তু হাইকোর্টের এই রায়ের ফলে নির্বাচনে তার অংশগ্রহণ অনেকটাই অনিশ্চিত হয়ে পড়ছে। আর আগে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কেএম নুরুল হুদা বলেন, যাদের বিরুদ্ধে সাজা দেয়া হয়েছে আদালতের রায়ে এমন ব্যক্তিদের ক্ষেত্রে নির্বাচন কমিশন কোন সিদ্ধান্ত নেবে না। আদালত যে নির্দেশনা দেবে কমিশন সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নেবে। ইতোমধ্যে দুই মামলায় খালেদ জিয়ার বিরুদ্ধে ১৭ বছরের সাজার ঘোষণা করা হয়েছে।


একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে তিনশ’ আসনে ৩ হাজার ৬৫ জন প্রার্থী তাদের মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। এর মধ্যে ইসির নিবন্ধিত ৩৯ রাজনৈতিক দলের প্রার্থীরা যেমন রয়েছেন। তেমনি স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবেও অনেকে তাদের মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। তিনশ’ আসনে আওয়ামী লীগ, বিএনপি জাতীয় পার্টিসহ বিভিন্ন জোটের রাজনৈতিক দলগুলোর পক্ষ থেকে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন ২ হাজার ৫৬৯ জন। স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে লড়তে এবারে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন ৪৯৮ জন প্রার্থী।


ইসি সূত্রে জানা গেছে এবারের নির্বাচনে কোন রাজনৈতিক দলের পক্ষ থেকে তিনশ’ আসনের মনোনয়ন জমা দেয়া হয়নি। জোট মহাজোটের কারণে অনেক আসনে আওয়ামী লীগ এবং বিএনপির প্রার্থীরা মনোনয়নপত্র জমা দেননি। এর মধ্যে ৩৬টি আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থীরা মনোনয়ন দাখিল করেননি। অপর দিকে বিএনপির প্রার্থীরা মাত্রটি ৫টি আসনে মনোনয়নপত্র জমা দেননি। নির্বাচনে বিএনপির পক্ষ থেকে সর্বাধিক প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছে। ২৯৫ আসনে বিএনপির মনোনয়ন জমা পড়েছে ৬৯৬টি। অপর দিকে আওয়ামী লীগ তিনশ’ আসনের বিপরীতে লীগের মনোনয়ন জমা পড়ে ২৮১টি। জাতীয় পার্টির প্রার্থীরা মনোনয়ন জমা দিয়েছেন ২৩৩টি আসনে।


আইন অনুযায়ী ইসির নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলের প্রার্থীরাই কেবল দলীয় প্রার্থী হিসেবে বিবেচিত হবে। ইসিতে নিবন্ধিত দলীয় প্রতীক নিয়ে নির্বাচনে অংশ নেবেন। এর বাইরে যেসব প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন তাদের স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করতে হবে। স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করতে হলে মোট ভোটারের শতকরা ১ ভাগের স্বাক্ষরযুক্ত তালিকা জমা দিতে হবে। তবে আগের নির্বাচনে অংশ নিয়ে বিজয়ী হলে তার ক্ষেত্রে এই নিয়ম প্রযোজ্য হবে না। দলীয় প্রার্থীদের দল থেকে প্রত্যায়ন বা চিঠি জমা দিতে হবে।


কোন্ দলের কতজন প্রার্থী ॥ গত ৮ নবেম্বর একদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হয়। তফসিল অনুযায়ী নির্বাচনে মনোনয়নপত্র জমার শেষ দিন ছিল ২৮ নবেম্বর। শেষ দিনে সারাদেশের তিনশ’ আসনে উৎসবমুখর পরিবেশে প্রার্থীরা তাদের মনোনয়নপত্র জমা দেয়। ইসির হিসাব অনুযায়ী আওয়ামী লীগ নৌকা প্রতীকের জন্য ২৬৪ আসনে মনোনয়ন জমা পড়েছে ২৮১ প্রার্থীর, বিএনপি ধানের শীষ প্রতীকে ২৯৫ আসনে ৬৯৬ প্রার্থীর, জাতীয় পার্টি (জাপা) লাঙ্গল প্রতীকে ২১০ আসনে ২৩৩ জন, জাতীয় পার্টি (জেপি) ১৫ আসনে ১৭ জন, বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি-সিপিবি কাস্তে প্রতীকে ৭৯ আসনে ৭৯ জন, বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল-বাসদ মই প্রতীকে ৪৯ আসনে ৪৯ জন, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জাসদ মশাল ৫২ আসনে ৫৩ জন, গণফোরাম উদীয়মান সূর্য প্রতীকে ৫৭ আসনে ৬১ জন, বিকল্পধারা বাংলাদেশ কুলা প্রতীকে ৩৫ আসনে ৩৭ জন, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জেএসডি তারা প্রতীকে ৪৯ আসনে ৫১ জন, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ, হাতপাখা প্রতীকে ২৯৭ আসনে ২৯৯ জন, বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলন, বটগাছ প্রতীকে ২৫ আসনে ২৬ জন, কৃষক-শ্রমিক-জনতা লীগ গামছা প্রতীকে ২৯ আসনে ৩৭ জন, লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি, ছাতা প্রতীকে ১৪ আসনে ১৫ জন, বাংলাদেশের সাম্যবাদী দল-এমএল (চাকা) ৩ আসনে ৩ জন, গণতন্ত্রী পার্টি (কবুতর) ৮ আসনে ৮ জন, বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি (কুঁড়ে ঘর) ১৪ আসনে ১৪ জন, বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি (হাতুড়ি) ৩৩ আসনে ৩৩ জন, জাকের পার্টি (গোলাপ ফুল) ১০৬ আসনে ১০৮ জন, বাংলাদেশ জাতীয় পার্টি-বিজেপি (গরুর গাড়ি) ১০ আসনে ১১ জন, বাংলাদেশ তরিকত ফেডারেশন (ফুলের মালা) ২০ আসনে ২০ জন, বাংলাদেশ মুসলিম লীগ (হারিকেন) ৪৯ আসনে ৪৯ জন, ন্যাশনাল পিপলস পার্টি (আম) ৯০ আসনে ৯০ জন, জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ (খেজুর গাছ) ১৫ আসনে ১৫ জন, গণফ্রন্ট (মাছ) ১৬ আসনে ১৬ জন, প্রগতিশীল গণতান্ত্রিক দল-পিডিপি (বাঘ) ১৬ আসনে ১৬ জন, বাংলাদেশ ন্যাপ (গাভী) ৪ আসনে ৪ জন, বাংলাদেশ জাতীয় পার্টি (কাঁঠাল) ১৩ আসনে ১৩ জন, ইসলামিক ফ্রট বাংলাদেশ (চেয়ার) ২৪ আসনে ২৮ জন, বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টি (হাতঘড়ি) ৫ আসনে জন, ইসলামী ঐক্যজোট (মিনার) ৩২ আসনে ৩২ জন, বাংলাদেশ খেলাফত মজলিম (রিক্সা) ১২ আসনে ১২ জন, বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্ট (মোমবাতি) ২১ আসনে ২১ জন, জাতীয় গণতান্ত্রিক পার্টি (জাগপা) (হুক্কা) ৬ আসনে ৬ জন, বাংলাদেশের বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টি (কোদাল) ৩০ আসনে ৩০ জন, খেলাফত মজলিশ (দেয়ালঘড়ি) ১২ আসনে ১২ জন, বাংলাদেশ মুসলিম লীগ-বিএমএল (হাতপাখা) ১৭ আসনে ১৭ জন, বাংলাদেশ সাংস্কৃতিক মুক্তিজোট (ছড়ি) ১ আসনে ১ জন ও বাংলাদেশ ন্যাশনালিস্ট ফ্রন্ট-বিএনএফ (টেলিভিশন) ৭০ আসনে ৭১ প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতার জন্য মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছে। আজ বাছাইয়ে যারা অযোগ্য হবেন তাদের মনোনয়নপত্র বতিল করা হবে।

User Comments

  • রাজনীতি