২৪ আগস্ট ২০১৯ ১৮:৩২:০০
logo
logo banner
HeadLine
আবারও ভেস্তে গেল রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া * গ্রেনেড হামলায় খালেদার মদদ ছিল,মৃত্যু ভয়ে আমি কখনই ভীত ছিলাম না, এখনও নই * নারকীয় গ্রেনেড হামলার ১৫তম বার্ষিকী আজ, আওয়ামীলীগকে নেতৃত্বশূন্য করতেই এ হামলা * ২২ আগস্ট থেকে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরু * ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি ১,৬১৫ জন, কমছে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা * জাতিসংঘ সদর দপ্তরে প্রথমবারের মতো পালিত হলো জাতীয় শোক দিবস * ডেঙ্গু দমন নিয়ে অসন্তোষ হাইকোর্ট * সারাদেশে ছড়িয়ে পড়েছে ডেঙ্গু * ডেঙ্গুর কার্যকর ওষুধ ছিটাতে স্বাস্থ্যমন্ত্রী ও দুই মেয়রকে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ , নাগরিকদেরকে তাদের বাড়িঘর পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখার আহ্বানও জানিয়েছেন তিনি * সরকারী হাসপাতেলে বিনামূল্যে, বেসরকারীতে ডেঙ্গু পরীক্ষার ফি বেঁধে দিয়েছে সরকার * ডেঙ্গু জ্বর: প্রতিরোধের উপায় * ডেঙ্গু : প্রকার, প্রতিরোধ ও চিকিৎসা * ডেঙ্গু সম্পর্কে ১০ তথ্য * টানা বৃষ্টির সম্ভাবনা, সমুদ্রবন্দরসমূহে ৩ নং সতর্ক সংকেত * মশা নিধনে দুই সিটি করপোরেশনকে চারদিন সময় দিলেন হাইকোর্ট * আমরা বিশুদ্ধ পানি চাই: হাইকোর্ট * প্রধানমন্ত্রীর চোখে অস্ত্রোপচার * ছেলেধরা সন্দেহে ১৮ জনকে গণপিটুনি, সারাদেশে আতঙ্ক * গুজব-গণপিটুনি বন্ধে পুলিশ সদর দপ্তরের বার্তা * দূত সম্মেলনে যোগ দিলেন প্রধানমন্ত্রী * রাজধানীতে ছেলেধরা সন্দেহে গনপিটুনিতে নিহতের ঘটনায় ৫০০ জনের বিরুদ্ধ্বে হত্যা মামলা * লন্ডন পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী * ধর্মীয় সম্প্রীতির ক্ষেত্রে বাংলাদেশ একটি উল্লেখযোগ্য নাম, সংখ্যালঘু নির্যাতনের বিষয়ে প্রিয়া সাহার অভিযোগ সঠিক নয়, : মার্কিন রাষ্ট্রদূত * রিফাত হত্যায় আদালতে মিন্নির স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি * রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনে মিয়ানমারকে চাপ দিতে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতি পররাষ্ট্রমন্ত্রীর আহ্বান * জিএম কাদের জাতীয় পার্টির নতুন চেয়ারম্যান * এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল প্রকাশ, পাসের হার ৭৩.৯৩ * অরক্ষিত রেলক্রসিং, মাইক্রোবাসে ট্রেনের ধাক্কায় বর-কনেসহ নিহত ৯ * উন্নয়নের গতি বাড়াতে ডিসিদের প্রতি প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ * রোমাঞ্চকর ফাইনাল জিতে চ্যাম্পিয়ন ইংল্যান্ড *
     17,2019 Sunday at 19:43:17 Share

যেখানে জনক তুমি মৃত্যুঞ্জয়ী

যেখানে জনক তুমি মৃত্যুঞ্জয়ী

যেখানে জনক তুমি মৃত্যুঞ্জয়ী


আসাদ মান্নান

কোনো রাজমহল নয়


অনেক পুরনো


ভগ্নপ্রায়


একটা বনেদী বাড়ি।


তার এক কোণে


তৈরি হওয়া


একটা টিনের ঘর;


এ ঘরেই জন্ম নেন


একটা আলোর শিশু,


এক ভূমিপুত্র:


মায়ের প্রাণের ধন


বাবার চোখের মণি।


২.


দ্যাখো তো দ্যাখি


কী এক অবাক কা-ই না ঘটে গেল


বড় হয়ে একদিন


সবার আদুরে খোকা হয়ে গেল


প্রথমে শেখ সাহেব


তারপর বঙ্গবন্ধু;


পাহাড় ডিঙ্গিয়ে


ঝড়ে ও ঝঞ্ঝায়


নদী-নালা খাল-বিল


সমুদ্র পেরিয়ে


অতঃপর


এক নদী রক্তে


ভাসতে ভাসতে


আকাশ ছাড়িয়ে


গৌরবের অপার সৌরভ


ছড়াতে ছড়াতে


একদিন অপরাহ্ণে


এক বিরান বধ্যভূমিতে


দু’চোখে অশ্রু


দু’হাত শূন্য


খালি মুখে


শুধু


এক পৃথিবী ভালোবাসা


বুকে নিয়ে


সদীপ্ত পায়ে


দাঁড়ালেন তিনি এসে


স্বজন হারানো কোটি স্বজনের পাশে,


মহান জাতির মহান জনক-


বাঙালীর পিতা মুজিবুর!


৩.


অথচ একটা খুব


অবহেলিত পিছিয়ে থাকা


অজগাঁয়ে


আর দশটা শিশুর মতো


সাদামাটা


আটপৌরে


জন্ম যার,


শৈশব থেকেই


তার সঙ্গে ছিল


একরোখা দূরন্ত হাওয়ার


দারুন মিতালী।


খুব দুষ্ট প্রকৃতির


ডানপিঠে


মা-বাবার আদরের খোকা


কোনওরূপ বন্ধন ছাড়াই


যখন তখন


সদলে বেড়াত ঘুরে


এখানে ওখানে


নদীতে ঝাঁপিয়ে পড়ে


উল্লাসে সাঁতার কাটত;


প্রিয় শখ:


গান আর খেলাধুলা।


৪.


দিন হাঁটে


সময়ের অদৃশ্য বাহনে


রাত্রি তার পিছে পিছে পিছে ছোটে


ঘড়ির কাঁটায়


দিনে দিনে বেড়ে ওঠে


লীডার মুজিব


নেতাজীর


স্বদেশী হাওয়ার গন্ধ


তার নাকে আসে


স্বাধীনতাহীনতার


দীনতার


নির্মম যাতনা


বাজে তার বুকের তন্ত্রীতে


দেশ-মানুষের মুক্তির মন্ত্রণা


তার চিত্তে


যে আগুন জা¡লে


অন্ধকারে


দুঃসহ নির্জন কারাবাস


শাসক জান্তার রক্তচক্ষু


পরশ্রীকাতর পাড়া-পড়শির


হরেকরকম ষড়য্ন্ত্র


কিছু কিংবা কেউ আর


সে-আগুন নিভাতে পারে নি।


৫.


তুমি নেই পিতা,


কিন্তু আছে


সবখানে


তোমার বিশাল ছায়া-


তাকে কেউ সরাতে পারে নি,


কী করে সরাবে!


তোমার দেখানো পথে উড়ে আজ


বিজয় পতাকা,


শূন্য থেকে মহাশূন্যে


আমাদের মহাযাত্রা;


তোমার নামেই


যে-আগুন আমরা জ্বেলেছি


জ্বলে স্থলে অন্তরীক্ষে


সে-আগুন অবিনাশী ,


চির অনির্বাণ-


এ আগুন কেউ আর


নিভাতে পারে না,


কী করে নিভাবে!


যেখানে জনক তুমি মৃত্যুঞ্জয়ী।
(জনকণ্ঠে প্রকাশিত)।

User Comments

  • আরো