২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১ ০:৫৮:৫৩
logo
logo banner
HeadLine
২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১ : পরীক্ষা ১৭৫১৫, শনাক্ত ৮১৮, শনাক্তের হার ৪.৫৯ শতাংশ , মৃত্যু ২৫, সুস্থ ৯৬৫ জন * জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭৬তম অধিবেশনে প্রধানমন্ত্রীর ভাষণের পূর্ণ বিবরণ * কোভিড-মুক্ত বিশ্ব গড়তে জাতিসংঘে সার্বজনীন, সাশ্রয়ী টিকা দাবি প্রধানমন্ত্রীর * বাংলাদেশ ও শেখ হাসিনার নেতৃত্বের প্রশংসায় জাতিসংঘ মহাসচিব * ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১: চট্টগ্রামে ৩ শতাংশ হারে শনাক্ত ৪৬, মৃত ৩ জন * ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১ : পরীক্ষা ২৭১৪১, শনাক্ত ১২৩৩, শনাক্তের হার ৪.৫৪ শতাংশ , মৃত্যু ৩১, সুস্থ ১৪১৩ জন * ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১: চট্টগ্রামে ২.০২ শতাংশ হারে শনাক্ত ২৬, মৃত ৩ জন * 'অতি জরুরি' ভিত্তিতে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন জোরদারের দাবি প্রধানমন্ত্রীর * ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১ : পরীক্ষা ২৪৮২০, শনাক্ত ১১৪৪, শনাক্তের হার ৪.৬১ শতাংশ , মৃত্যু ২৪, সুস্থ ১৬৫৩ জন * ২২ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত দেশে টিকা দেয়া হয়েছে ৩ কোটি ৯০ লাখ ৩১ হাজার ৮৯৬ ডোজ * কোভিড-১৯ ভ্যাকসিনকে সার্বজনীন গণপণ্য ঘোষণার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর * ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১: চট্টগ্রামে ৩.২৭ শতাংশ হারে শনাক্ত ৫৪, মৃত ২ জন * ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১ : পরীক্ষা ২৮৭৩৬, শনাক্ত ১৩৭৬, শনাক্তের হার ৪.৭৯ শতাংশ , মৃত্যু ৩৬, সুস্থ ১৪২৭ জন * আইসিটি,নবায়নযোগ্য জ্বালানি ও ব্লু ইকনমিতে মার্কিন বিনিয়োগ আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর * ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১: চট্টগ্রামে ২.৭৪ শতাংশ হারে শনাক্ত ৪৮, মৃত ১ জন *
     22,2021 Wednesday at 12:17:08 Share

জঙ্গি সনাক্তকরণের বিজ্ঞাপন সম্প্রীতি বাংলাদেশের নয়: পীযূষ

জঙ্গি সনাক্তকরণের বিজ্ঞাপন সম্প্রীতি বাংলাদেশের নয়: পীযূষ

বিডিনিউজ :: সন্দেহভাজন জঙ্গি সদস্য সনাক্তকরণের কিছু নির্দেশক তুলে ধরে গণমাধ্যমে প্রকাশিত বিজ্ঞাপনটিকে ‘অনভিপ্রেত’ ও ‘অনাকাঙ্ক্ষিত’ আখ্যা দিয়ে সেটি ‘সম্প্রীতি বাংলাদেশের’ পক্ষ থেকে দেওয়া হয়নি বলে দাবি করেছেন সংগঠনটির আহ্বায়ক পীযূষ বন্দ্যোপাধ্যায়।

বৃহস্পতিবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের তফাজ্জল হোসেন মানিক মিয়া হলে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, প্রকাশিত জঙ্গি সনাক্তকরণ বিজ্ঞাপনটি উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। দেশবাসীকে বিভ্রান্ত করতেই মুক্তিযুদ্ধের বিরোধী শক্তি এমন অপপ্রচার চালিয়েছে। ওই বিজ্ঞাপনের সাথে সম্প্রীতি বাংলাদেশের কোনো সম্পর্ক নেই।

গত সোমবার একাধিক জাতীয় পত্রিকায় ‘সন্দেহভাজন জঙ্গি সদস্য সনাক্তকরণের (রেডিক্যাল ইন্ডিকেটর) নিয়ামকসমূহ’ শিরোনামে ‘সম্প্রীতি বাংলাদেশের’ নামে একটি পোস্টার ছাপানো হয়। সেখানে দাঁড়ি রাখা ও টাখনুর উপর কাপড় পরাসহ বেশ কিছু আচারকে জঙ্গি লক্ষণ হিসেবে তুলে ধরা হয়েছে।

অন্য লক্ষণগুলোর মধ্যে ধর্ম চর্চার প্রতি ঝোঁক; গায়ে হলুদ, জন্মদিন পালন, গান বাজনা থেকে গুটিয়ে রাখা; মিলাদ, শবেবরাত, শহীদ মিনারে ফুল দেওয়াকে ধর্মীয় দৃষ্টিকোণ থেকে সমালোচনা করা ইত্যাদি আচরণের কথা তুলে ধরা হয়েছে।

নাট্যব্যক্তিত্ব পীযূষ সাংবাদিকদের বলেন, সম্প্রীতি বাংলাদেশ মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় দৃঢ়ভাবে বিশ্বাসী এবং সব ধর্মের প্রতি শ্রদ্ধাশীল একটি সামাজিক সংগঠন। সব ধর্মের প্রতি শ্রদ্ধাশীল থেকে অসাম্প্রদায়িক জাতিসত্বার পক্ষে কাজ করে চলেছে।

জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে ‘জিরো টলারেন্সের’ ঘোষণার কথা স্মরণ করিয়ে দিয়ে তিনি বলেন, সম্প্রীতি বাংলাদেশ সব মহলের সক্রিয় সহযোগিতায় সব ধরণের উগ্রবাদ, সন্ত্রাসবাদ, ঘৃণ্য সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে সব সময় সক্রিয় রয়েছে এবং ভবিষতেও থাকবে। 

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, বাংলাদেশে থাকবে আন্তঃধর্ম সুসম্পর্ক। থাকবে না কোনো প্রকার বৈষম্য, থাকবে না কোনো নিপীড়ন-নির্যাতন। অত্যাচারীর খড়্গ কৃপাণ বাংলাদেশকে রক্তাক্ত ও কলুষিত করবে না।

নিরাপত্তা বিশ্লেষক মোহাম্মদ আলী শিকদার, সাবেক সচিব নাসির উদ্দিন আহমেদ, ইসলামী ঐক্যজোট চেয়ারম্যান মাওলানা মিছবাহুর রহমান চৌধুরী ও বাংলাদেশ খ্রিস্টান অ্যাসোয়িশনের সভাপতি উইলিয়াম প্রলয় সমাদ্দার এসময় উপস্থিত ছিলেন।

 

User Comments

  • অন্যান্য সংবাদ