২৫ মে ২০২০ ১২:৪০:৪৬
logo
logo banner
HeadLine
আজ পবিত্র ঈদুল ফিতর, রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শুভেচ্ছা * করোনায় মারা গেলেন এনএসআই কর্মকর্তা সন্দ্বীপের নাছির উদ্দিন * সন্দ্বীপবাসীকে পবিত্র ইদুল ফিতরের শুভেচ্ছা জানালেন মেয়র * ২৪ মে : দেশে আজ শনাক্ত আরও ১৫৩২, মৃত ২৮ * করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত চলবে সরকারি সহায়তা, জীবন-জীবিকার স্বার্থে চালু করতে হবে অর্থনৈতিক কর্মকান্ড - প্রধানমন্ত্রী * সন্ধ্যায় জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা * ২৩ মে : চট্টগ্রামে নতুন শনাক্ত ১৬৬ * করোনাকালীন সঙ্কটে পড়া সন্দ্বীপ পৌরসভার কর্মহীনদের বরাবরে সরকারের দেয়া ২৫০০ টাকা ছাড় শুরু * ২৩ মে : দেশে আজ শনাক্ত আরও ১৮৭৩, মৃত ২০ * বিদায় মাহে রমজান, আজ জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভা * হালদায় ১৪ বছরের সর্বোচ্চ রেকর্ড, ২৫ হাজার ৫৩৬ কেজি ডিম সংগ্রহ * ২২ মে : চট্টগ্রামে নতুন শনাক্ত ১৬১ * সন্দ্বীপ পৌরসভার জাটকা আহরণে বিরত জেলেদের মাঝে চাল বিতরণ * ২২ মে : দেশে আজ শনাক্ত আরও ১৬৯৪, মৃত ২৪ * এসএসসির ফল ৩১ মে * ঈদে বাইরে ঘোরাফেরা নয়, ঘরেই থাকুন: র্যা ব ডিজি * ঘূর্ণিঝড় আম্ফানে ক্ষতিগ্রস্তদের সহায়তা প্রদানে দ্রুত পদক্ষেপ নিতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ * সন্দ্বীপ পৌরসভার কর্মহীন অসহায় মানুষদের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর ইদ উপহার বিতরণ * ২১ মে : দেশে আজ শনাক্ত আরও ১৭৭৩, মৃত ২২ * বায়তুশ শরফের পীরের জানাজা ও দাফন সম্পন্ন * দুর্বল হয়ে পড়েছে আম্পান, বন্দরসমূহে ৩ নং স্থানীয় সতর্ক সংকেত * করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেলেন বায়তুশ শরফের পীর ছাহেব * দুর্বল হয়ে পড়ছে 'আম্পান', উপকূলীয় কিছু এলাকা ক্ষতিগ্রস্থ,নিহত অন্তত ৭ * ২০ মে : চট্টগ্রামে নতুন শনাক্ত ২৫৭ * ২০ মে : দেশে আজ শনাক্ত আরও ১৬১৭, মৃত ১৬ * পশ্চিমবংগের সাগরদ্বীপ ও সুন্দরবনকে কেন্দ্র করে উপকূলে আঘাত হানতে শুরু করেছে আম্ফান * সন্দ্বীপের উপকূলীয় এলাকায় ঘুর্ণিঝড় সতর্কতায় মেয়র টিটুর মাইকিং * ঘূর্ণিঝড় আম্ফান মোকাবিলায় কন্ট্রোল রুম খুলেছে সন্দ্বীপ পৌরসভা * ঘুর্ণিঝড় আম্ফান : মংলা ও পায়রা ১০, চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার ৯ নং মহা বিপদ সংকেত * আজ সন্ধ্যা নাগাদ সুন্দরবনের উপর দিয়ে পশ্চিমবঙ্গ-বাংলাদেশ উপকূল অতিক্রম করতে পারে আম্ফান , মংলা ও পায়রা ১০ নং বিপদ সংকেত *
     27,2020 Friday at 17:57:47 Share

আতঙ্ক না ছড়াই, সতর্ক থাকি সাহায্য করি - সেনাবাহিনীর বার্তা,

আতঙ্ক না ছড়াই, সতর্ক থাকি সাহায্য করি - সেনাবাহিনীর বার্তা,

সারাদেশে টহলের পাশাপাশি সচেতনতা সৃষ্টিতে কাজ করছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী। সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার পাশাপাশি ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে সচেতনতামূলক প্ল্যাকার্ড নিয়ে জনসচেতনতা সৃষ্টিতেও কাজ করতে দেখা যাচ্ছে তাদের। প্ল্যাকার্ডে লেখা- ‘আতঙ্ক না ছড়াই, সতর্ক থাকি সাহায্য করি’, ‘বিদেশ থেকে এসেছি যারা, কোয়ারেন্টাইনে থাকবো তারা’, ‘ঘন ঘন হাত ধুই, করোনা থেকে নিরাপদ রই।’


ঢাকাসহ সারাদেশে তাদের টহল চলছে। সরেজমিনে ঢাকার এলিফ্যান্ট রোড, শাহবাগ থেকে কাওরাান বাজার, রামপুরাসহ বেশ কয়েকটি সড়কে সেনাবাহিনীর গাড়ি টহল দিতে দেখা গেছে। টহল গাড়িতে ‘পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন জীবন যাপন করুন’ লেখা স্টিকারও দেখা গেছে।


রাজধানীর বিভিন্ন পয়েন্টে মানুষের সঙ্গে তাদের কথা বলতে দেখা গেছে এবং বিভিন্ন স্থানে গাড়ি থামিয়ে নির্ধারিত পরিচ্ছন্ন ব্যক্তিকে দিয়ে গাড়ির চারপাশে স্যানিটাইজার ছিটানোর দৃশ্যও চোখে পড়েছে। কোথাও জটলা দেখলে তাদের সঙ্গে কথা বলে সরিয়ে দিচ্ছেন সেনা সদস্যরা।


এর আগে সোমবার আইএসপিআর সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে মঙ্গলবার থেকে সেনাবাহিনীকে নিয়োজিত করা হবে। এ সময় বিদেশ থেকে আসা ব্যক্তির অবস্থান নির্ণয় ও তাদের নিজ নিজ অবস্থানে কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করাই হবে সেনাবাহিনীর মূল লক্ষ্য। ঘোষণার পরদিন মঙ্গলবার নির্ধারিত ব্রিগেড কমান্ডাররা বিভাগীয় কমিশনারদের সঙ্গে প্রয়োজনীয় সমন্বয় বৈঠক করেন। পরদিন দায়িত্বপ্রাপ্ত ইউনিট অধিনায়করা জেলা প্রশাসক, পুলিশ প্রশাসন ও সিভিল সার্জনদের সঙ্গে সমন্বয় করে কাজ শুরু করেন।


আইএসপিআর বলেছে, সেনাবাহিনী বিদেশ থেকে আসাদের কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করতে জেলা প্রশাসকদের সমন্বয়ে একটি কার্যকর পরিকল্পনা নেবে। সেই পরিকল্পনার সময় বেশ কয়েকটি বিষয় বিবেচনায় নেয়া হতে পারে। এগুলোর মধ্যে প্রথমেই আছে, করোনা পরিস্থিতির ওপর জেলা প্রশাসনের প্রস্তুতি মূল্যায়ন এবং এ অবস্থার প্রেক্ষিতে সেনাবাহিনীর প্রয়োজন ও ক্ষেত্রগুলো চিহ্নিত করা।


দ্বিতীয়, জেলা প্রশাসনে রাখা গত এক মাসে বিদেশ থেকে আসা ব্যক্তিদের পরিসংখ্যান ও বিস্তারিত তথ্য। তৃতীয়, জেলায় সেলফ কোয়ারেন্টাইনের জন্য নির্বাচিত ব্যক্তিদের পরিসংখ্যান। চতুর্থ, সেলফ কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করতে জেলা প্রশাসনের নেয়া পর্যবেক্ষণ পদ্ধতি। পঞ্চম, সেলফ কোয়ারেন্টাইনের জন্য নির্বাচিতদের মধ্যে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না, এমন ব্যক্তিদের পরিসংখ্যান। ষষ্ঠ, কোয়ারেন্টাইন কর্মসূচী নিশ্চিত করতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের সম্পৃক্ত করার ক্ষেত্রগুলো। সর্বশেষটি হলো, দায়িত্বে যেসব ব্যক্তি থাকবেন তাদের স্বাস্থ্য নিরাপত্তা নিশ্চিতে পারসোনাল প্রোটেক্টিভ ইকুইপমেন্ট (পিপিই) সংখ্যা ঠিক করা।


বৃহস্পতিবার আইএসপিআর জানায়, সেনাবাহিনীর ২৯০টি দল ৬১ জেলায় করোনাভাইরাস নিয়ন্ত্রণে স্থানীয় প্রশাসনের সঙ্গে একযোগে কাজ করেছে। বাইরে কোন ক্যাম্প স্থাপন না করে স্থানীয় সেনানিবাস থেকেই এ কার্যক্রম পরিচালনা করছে সেনাবাহিনী। জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের সমন্বয়ে সেনাবাহিনী বিভাগীয় ও জেলা শহরে সামাজিক দূরত্ব ও সতর্কতামূলক ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য জনসাধারণকে উৎসাহিত করছে। পাশাপাশি তারা বিদেশ ফেরত ব্যক্তিদের বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টাইনের বিষয়টিও পর্যবেক্ষণ করছে।


সারাদেশে এ কার্যক্রমে সেনাবাহিনীর আড়াই হাজারের অধিক সেনা সদস্য দায়িত্ব পালন করছে। করোনা প্রতিরোধে সেনাবাহিনীর এ কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।

User Comments

  • জাতীয়