৮ আগস্ট ২০২০ ৯:৬:৩৬
logo
logo banner
HeadLine
৭ আগস্ট : দেশে আজ শনাক্ত ২৮৫১ , মৃত ২৭ * ৬ অগাস্ট : চট্টগ্রামে শনাক্ত আরও ১২৮ * সিনহা হত্যা মামলায় প্রদীপসহ ৩ আসামির ৭ দিন রিমান্ড * বিনিয়োগ আকৃষ্ট করতে সর্বোচ্চ আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর * সিনহা হত্যা মামলায় ওসি প্রদীপসহ ৭ আসামি কারাগারে * ২৫% নয়, অফিস করতে হবে সবাইকে * বন্দরসমূহে ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত * ৬ আগস্ট : দেশে আজ শনাক্ত ২৯৭৭ , মৃত ৩৯ * স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অনুমতি ছাড়া হাসপাতালে অভিযান নয় * সিনহা হত্যা মামলায় ওসি প্রদীপ গ্রেফতার * সিনহার মৃত্যুর ঘটনায় ওসি প্রদীপসহ ৯ পুলিশের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা * ৫ অগাস্ট : চট্টগ্রামে শনাক্ত আরও ১২১ * মানুষের উন্নত জীবন ধারা নিশ্চিত করাই মূল লক্ষ - প্রধানমন্ত্রী * ৫ আগস্ট : দেশে আজ শনাক্ত ২৬৫৪ , মৃত ৩৩ * শেখ কামালের জন্মবার্ষিকী আজ * লেবাননে বিস্ফোরণ, নিহত ৭৮ আহত ৪০০০ * ৪ অগাস্ট : চট্টগ্রামে শনাক্ত আরও ১১৯ * ৪ আগস্ট : দেশে আজ শনাক্ত ১৯১৮ , মৃত ৫০ * সুজন চসিক প্রশাসক, প্রধানমন্ত্রীর আস্থা রক্ষার প্রতিশ্রুতি * ৩ অগাস্ট : চট্টগ্রামে শনাক্ত আরও ১৭ * ৩ আগস্ট : দেশে আজ শনাক্ত ১৩৫৬ , মৃত ৩০ * ২ অগাস্ট : চট্টগ্রামে শনাক্ত আরও ৯ * ২ আগস্ট : দেশে আজ শনাক্ত ৮৮৬ , মৃত ২২ * ১ অগাস্ট : চট্টগ্রামে শনাক্ত আরও ৩০ * যথাযোগ্য মর্যাদায় সারাদেশে পবিত্র ঈদুল আজহা উদযাপন * ১ আগস্ট : দেশে আজ শনাক্ত ২১৯৯ , মৃত ২১ * ৩১ জুলাই : চট্টগ্রামে শনাক্ত আরও ১১২ * ৩১ জুলাই : দেশে আজ শনাক্ত ২৭৭২ , মৃত ২৮ * নিবন্ধনের অনুমতি পেলো ৩৪টি অনলাইন পোর্টাল * ৩০ জুলাই : চট্টগ্রামে শনাক্ত আরও ১২৫ *
     25,2020 Saturday at 20:08:36 Share

করোনায় কেন্দ্রীয় ঔষধাগারের সদ্য বিদায়ী পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ডা. শহীদুল্লাহর মৃত্যু

করোনায় কেন্দ্রীয় ঔষধাগারের সদ্য বিদায়ী পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ডা. শহীদুল্লাহর মৃত্যু

না ফেরার দেশে চলে গেলেন ওষুধ, চিকিৎসা সরঞ্জামাদি কেনাকাটা নিয়ে অনিয়ম ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে অবস্থান নেওয়া সদ্য বিদায়ী কেন্দ্রীয় ঔষধাগারের ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ডা. শহীদুল্লাহ। শনিবার (২৫ জুলাই) দুপুর ২টা ৫৫ মিনিটে রাজধানীর একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৫৬ বছর।


তার পারিবারিক সূত্রে এই মৃত্যু সংবাদ জানা গেছে। এর আগে গত ২৫ জুন তিনি সিএমএইচে ভর্তি হন। শুক্রবার থেকে অবস্থার অবনতি হলে প্রথমে আইসিউ এবং পরে ভেন্টিলেশনে নেওয়া হয়।


২০১৯ সালের ২২ নভেম্বর তিনি সিএমএসডির পরিচালক হিসেবে যোগদান করেন। গত ৩০ মে কেন্দ্রীয় ঔষধাগারের (সিএমডি) বিদায়ী পরিচালক (ভাণ্ডার ও সরবরাহকারী) ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. শহীদুল্লাহ জনপ্রশাসন সচিবকে চিঠি দেন। ওই চিঠিতে তিনি সিএমএসডিসহ গোটা স্বাস্থ্য খাতকে ‘সিন্ডিকেট বাণিজ্যমুক্ত’ করার অনুরোধ জানান। এর মাঝে ২২ মে এই দায়িত্বে পরিবর্তন আনে সরকার। সেনাবাহিনীতে ফেরানো হয় ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শহীদ উল্লাহকে।


চিঠিতে সিএমএসডিসহ স্বাস্থ্য খাতে ঠিকাদার চক্রের ইশারায় বদলি, পদায়নসহ নানা বিষয় তুলে ধরেন। এছাড়া করোনাকালে স্বাস্থ্যসেবায় সমন্বয়হীনতার চিত্র উঠে আসে তার চিঠিতে। এতে এই সেনা কর্মকর্তা সিএমএসডির ক্রয় প্রক্রিয়ায় সরকারি এবং সাপ্লাইয়ার (ঠিকাদার) পরিবেষ্টিত দুষ্টচক্র বা সিন্ডিকেট বাণিজ্যের আধিপত্য সম্পর্কেও তথ্য দিয়েছেন।


ডা. মো. শহীদ উল্লাহ সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজের ২০তম ব্যাচের শিক্ষার্থী ছিলেন বলে বিএমএ জানিয়েছে।


চিকিৎসকদের এই সমিতির হিসাবে, বাংলাদেশে করোনাভাইরাস আক্রান্ত হয়ে এবং এর উপসর্গ নিয়ে ৬৮ জন চিকিৎসকের মৃত্যু হয়েছে।


স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পিপিই নীতিমালা অনুযায়ী রোগীর নমুনা পরীক্ষা ও চিকিৎসার জন্য এন-৯৫ মাস্ক পরা জরুরি। কিন্তু মার্চের শেষ ভাগে কেন্দ্রীয় ঔষধাগার থেকে বিভিন্ন হাসপাতালে যেসব মাস্ক পাঠানো হয়, তার প্যাকেটে ‘এন-৯৫’ লেখা থাকলেও ভেতরে ছিল সাধারণ সার্জিক্যাল মাস্ক।


ফলে সেগুলো আসল মাস্ক কি না তা নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেন চিকিৎসকরা; বিষয়টি সে সময় সংবাদ মাধ্যমেও আসে। ঢাকার মুগদা জেনারেল হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি সাবের হোসেন চৌধুরী ওই মাস্কের মান সম্পর্কে জানতে চেয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ও কেন্দ্রীয় ঔষধাগারে পরিচালককে চিঠি দেন।


বিষয়টি খতিয়ে দেখার পর ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শহিদ উল্লাহ ২ এপ্রিল স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ব্রিফিংয়ে স্বীকার করে বলেন, ওই মাস্ক সাধারণ সার্জিক্যাল মাস্ক ছিল। প্যাকেটের গায়ে এন-৯৫ লেখা হয়েছিল ‘ভুল করে’।


তবে এর পরেও বিষয়টি নিয়ে আলোচনা চলতে থাকায় ১৮ এপ্রিল পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি দেয় সিএমএসডি। পরিচালক ডা. মো. শহীদ উল্লাহ স্বাক্ষরিত প্রতিবাদপত্রে বলা হয়, মাস্ক সরবরাহের ঘটনায় বিভিন্ন সংবাদ ও সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে স্বাস্থ্যমন্ত্রী, তার ছেলে, স্বাস্থ্য সেবা সচিব এবং স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালককে জড়িয়ে ‘মানহানিকর সংবাদ’ প্রকাশিত হচ্ছে।


“মাস্ক কেনার সঙ্গে স্বাস্থ্যমন্ত্রী, তার ছেলে, স্বাস্থ্য সেবা সচিব বা স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের কোনো সংশ্লেষ নেই।”


 

User Comments

  • জাতীয়