৪ মার্চ ২০২১ ২০:৪৫:৩২
logo
logo banner
HeadLine
টিকা নিলেন প্রধানমন্ত্রী * গবেষণা ও বিজ্ঞানের বিবর্তন দেশের উন্নয়নে অপরিহার্য : প্রধানমন্ত্রী * এইচ টি ইমামের মৃত্যু, রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শোক * ০৩ মার্চ : দেশে নতুন শনাক্ত আরও ৬১৪, মারা গেছেন ৫ জন, সুস্থ ৯৩৬ * সন্দ্বীপের ১৩টিসহ ৩৭১ ইউপি ভোট ১১ এপ্রিল * ২ মার্চ : দেশে নতুন শনাক্ত ৫১৫, মৃত্যু ৭, সুস্থ ৮৯৪ জন * বর্তমানে দেশে ভোটার সংখ্যা ১১ কোটি ১৭ লাখ ২০ হাজার ৬৬৯ * জনগণের জন্য খাদ্য, বাসস্থান ও টিকার প্রাধান্য দিচ্ছে সরকার : প্রধানমন্ত্রী * দেশে এ পর্যন্ত করোনা টিকা নিয়েছেন সোয়া ৩২ লাখ, নিবন্ধন করেছেন ৪৪ লাখ * ০১ মার্চ : আজ নতুন শনাক্ত ৫৮৫, মৃত্যু ৮, সুস্থ ৮৭৩ জন * জনগণকে বীমায় উদ্বুদ্ধ করতে কোম্পানীগুলোর প্রতি প্রধানমন্ত্রীর আহ্বান * ২৮ ফেব্রুয়ারি : করোনায় নতুন শনাক্ত ৩৮৫, মুত্যু ১১, সুস্থ ৮১৭ জন * সরকার দক্ষ জনশক্তি গড়ে তুলতে শিক্ষাকে বহুমাত্রিক করতে কাজ করছে : প্রধানমন্ত্রী * ৩০ মার্চ খুলছে স্কুল কলেজ * ২৭ ফেব্রুয়ারি : করোনায় নতুন শনাক্ত ৪৭০, মুত্যু ১১, সুস্থ ৭৪৩ জন *
     27,2021 Saturday at 22:03:55 Share

চলে গেলেন ব্যারিস্টার রফিক-উল হক

চলে গেলেন ব্যারিস্টার রফিক-উল হক

চলে গেলেন সাবেক অ্যাটর্নি জেনারেল ব্যারিস্টার রফিক-উল হক আজ শনিবার সকাল টা ৩০ মিনিটে রাজধানীর আদ-দ্বীন হাসপাতালে তিনি ইন্তেকাল করেন ইন্নালিল্লাহি ''য়াইন্না ইলাইহি রাজিউন তার বয়স হয়েছিলো ৮৬ বছর

দেশের বিশিষ্ট আইনজ্ঞ '' সাবেক অ্যাটর্নি জেনারেল ব্যারিস্টার রফিক-উল হক গত ১৫ অক্টোবর থেকে বার্ধক্যজনিত নানা জটিলতা নিয়ে রাজধানীর আদ্-দ্বীন হাসপাতালে ভর্তি হন। প্রথম দিকে তাকে কেবিনে রেখে চিকিৎসা দে''য়া হয়েছিল। কিন্তু অবস্থা কিছুটা জটিল হ''য়ায় তাকে হাই ডিপেনডেন্সি কেয়ার ইউনিটে (এইচডিইউ) ভর্তি করা হয়।

গত ২০ অক্টোবর তার শারীরিক অবস্থার আরো অবনতি হলে তাকে দ্রুত লাইফ সাপোর্টে নে''য়া হয়। ঐ সময় তার ব্লাড প্রেশার '' অক্সিজেন স্যাচুরেশন কমে যায়। এতে তিনি শকে চলে যান।

এরপর আদ্-দ্বীন হাসপাতালের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাহিদ ইয়াসমিন শুক্রবার জানিয়েছিলেন, স্যারের রক্তের পরীক্ষানিরীক্ষাগুলো করা হয়েছে। কিন্তু তাতে খুব একটা উন্নতি দেখা যাচ্ছে না। মেডিক্যাল বোর্ডের চিকিৎসকদের সঙ্গে কথা বলেছি। উনারা সবাই স্যারকে দেখেছেন। তারা'' বলেছেন, স্যারের অবস্থা সংকটাপন্ন। আমাদের আল্লাহ তায়ালার কাছে দোয়া করা ছাড়া আর কিছু করার নেই। আমরা চেষ্টা করে যাচ্ছি।

ব্যারিস্টার রফিক-উল হকের জন্ম ১৯৩৫ সালের ২রা নভেম্বর কলকাতার সুবর্ণপুর গ্রামে। ১৯৫৫ সালে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক, ১৯৫৭ সালে দর্শন বিষয়ে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন তিনি। ১৯৫৮ সালে এলএলবি পাস করেন। ১৯৬২ সালে যুক্তরাজ্য থেকে বার এট ল সম্পন্ন করেন। ১৯৬৫ সালে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী হিসেবে এবং ১৯৭৩ সালে আপিল বিভাগে আইনজীবী হিসেবে আইন পেশা শুরু করেন। বর্ণাঢ্য জীবনে আইন পেশায় দীর্ঘ প্রায় ৬০ বছর পার করেছেন।

বিগত সেনাসমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে আ''য়ামী লীগ সভানেত্রী '' বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়াকে কারাগার থেকে মুক্ত করতে

অকুতোভয় আইনি লড়াই করেন তিনি। দেশে সুশাসন প্রতিষ্ঠা '' বিচার বিভাগের স্বাধীনতা '' ভাবমূর্তি রক্ষায় বরাবরই সোচ্চার রফিক-উল হক। দেশের অনেক গুরুত্বপূর্ণ সাংবিধানিক '' আইনি বিষয় নিয়ে সরকারকে সহযোগিতা করেছেন বর্ষীয়ান এই আইনজীবী।

১৯৯০ সালের ৭ই এপ্রিল থেকে ১৭ই ডিসেম্বর পর্যন্ত রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ আইন কর্মকর্তা অ্যাটর্নি জেনারেল হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন রফিক-উল হক। কিন্তু কোনো সম্মানী নেননি। পেশাগত জীবনে তিনি কখনো কোনো রাজনৈতিক দল করেননি। তবে, নানা সময়ে রাজনীতিবিদরা সবসময় তাঁকে পাশে পেয়েছেন। রাজনীতিবিদদের সম্মান সবসময়ই অর্জন করেছেন তিনি।

ব্যারিস্টার রফিক-উল হক তাঁর জীবনের উপার্জিত অর্থের প্রায় সবই ব্যয় করেছেন মানুষের কল্যাণ '' সমাজসেবায়। আর তার এই উদ্যোগকে বিরল বলে আখ্যায়িত করেছেন আইন অঙ্গনে তার সমসাময়িকরা।

ব্যারিস্টার রফিক-উল হকের মৃত্যুতে আইন অঙ্গনে নেমে এসেছে শোকের ছায়া। তার মৃততে গভীর শোক প্রকাশ করেছে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি। এছাড়া সিনিয়র আইনজীবীরা'' গভীর শোক প্রকাশ করে শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান। তারা বলেন, আইন '' বিচারাঙ্গনে তার শূণ্যতা পূরণ হবার নয়।

 

User Comments

  • অন্যান্য সংবাদ