২৬ জুন ২০২২ ৮:১১:১১
logo
logo banner
HeadLine
পদ্মা সেতু উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী * পদ্মা সেতুর নিরাপত্তায় সেনাবাহিনী * সেতুর চেয়েও বড় * চ্যালেঞ্জ জয়ে স্বপ্ন পূরণ, পদ্মা সেতু উদ্বোধনের সেই মাহেন্দ্রক্ষণ আজ * দেশের অগ্রযাত্রা আর কেউ থামাতে পারবে না - প্রধানমন্ত্রী * আগামী নির্বাচনে জনগণ নৌকাই বেছে নেবে - আওয়ামী লীগ সভানেত্রী * শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে মাস্ক পরার নির্দেশ * ২৩ জুন, ২০২২ : ১৪.৩২ হারে আজ শনাক্ত ১৩১৯ * বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা * পদ্মা সেতু বাংলাদেশের অহংকার - প্রধানমন্ত্রী * ২১ জুন, ২০২২:১১.৩ শতাংশ হারে আজ শনাক্ত ৮৭৪, মৃত ১ * বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের সহায়তা দেওয়া হবে - প্রধানমন্ত্রী * দেশের সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন বুধবার * ২০ জুন, ২০২২: শনাক্ত ও সংক্রমণ বেড়েই চলেছে, ১০.৮৭ শতাংশ হারে আজ শনাক্ত ৮৭৩, মৃত ১ * বিদ্যুৎ ও জ্বালানি সাশ্রয়ে কাল থেকে রাত ৮টার পর দোকান-মার্কেট বন্ধ *
     19,2022 Sunday at 21:30:10 Share

বন্যায় মানুষের যাতে কষ্ট না হয়, সেজন্য যথাযথ ব্যবস্থা আমরা নিচ্ছি - প্রধানমন্ত্রী

বন্যায় মানুষের যাতে কষ্ট না হয়, সেজন্য যথাযথ ব্যবস্থা আমরা নিচ্ছি - প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘এবার বন্যাটা একটু বড় আকারে আসবে এমন আশঙ্কার কথা সরকারের সবাইকে আগেই জানিয়েছি কাজেই সেভাবে আগে থেকে আমাদের প্রস্তুতি আছে বন্যায় মানুষের যাতে করে কষ্ট না হয়, সেজন্য যথাযথ ব্যবস্থা আমরা নিচ্ছি

আজ রবিবার (১৯ জুন) প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের শাপলা হলে দেশের কৃতি ক্রীড়াবিদ, সংগঠক ক্রীড়া সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সংবর্ধনা আর্থিক সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে তিনি কথা বলেন

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আজ থেকে সুনামগঞ্জের পানি একটু কমতে শুরু করেছে। এই পানি যখন নামবে, মধ্য অঞ্চল যখন প্লাবিত হবে, এরপর আবার দক্ষিণাঞ্চল প্লাবিত হবে। এটাই প্রকৃতির নিয়ম।

তিনি বলেন, ‘ত্রাণ বিতরণ উদ্ধার কাজ; সবই করছি প্রশাসন, সেনাবাহিনী, বিমান বাহিনী নৌ বাহিনী থেকে শুরু করে সব প্রতিষ্ঠান উদ্ধার ত্রাণ ৎপরতা চালাচ্ছে সেই সঙ্গে আওয়ামী লীগ সহযোগী সংগঠনগুলোও সহযোগিতা করছে ত্রাণ উদ্ধার কাজ করছে স্যালাইন পানির ট্যাবলেটের ব্যবস্থা করা হচ্ছে, সাথে অন্যান্য ব্যবস্থাও করা হচ্ছে পানি নেমে গেলে যে পরিস্থিতি হতে পারে তার প্রস্তুতিও আমরা নিচ্ছি

তিনি বলেন, ‘ময়মনসিংহ রংপুর বিভাগেরও বন্যার আশঙ্কা রয়েছে। সেটা আগে থেকে সতর্কতামুলক ব্যবস্থা নিচ্ছি। পানি নিষ্কাশনের জন্য যা যা ব্যবস্থা যেটাও করে যাবো।

দেশে ১০-১২ বছর পরপর ধরনেরবড় বন্যাআসে বলে উল্লেখ করেন শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, ‘সবাইকে অনেক আগে থেকেই সতর্ক করেছিলাম। আমাদের সরকারের সবাইকে বলেছিলাম এবার কিন্তু বন্যাটা একটু বড় আকারে আসবে। কাজেই আগে থেকে প্রস্তুতি নিতে হবে। ফলে আমাদের প্রস্তুতি আছে। এই পানি যখন নামবে, মধ্য অঞ্চল যখন প্লাবিত হবে। ঠিক শ্রাবণ মাস পর্যন্ত থাকবে। শ্রাবণ থেকে ভাদ্র আবার দক্ষিণাঞ্চল প্লাবিত হবে।

বন্যা পরিস্থিতির মধ্যেই খেলোয়াড়দের সংবর্ধনা আয়োজনের কারণ উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, ‘সারাদেশ থেকে এই খেলোয়াড়রা আসছে। সংবর্ধনার কর্মসূচী আগেই নির্ধারণ করা ছিল, এটা আমরা করেছি। আমরা এটা করতে পারি। দুর্যোগ মোকাবিলার ব্যবস্থা নিতে আমরা পারি। সেই সঙ্গে জীবনতো চলতে হবে। আমরা পরীক্ষা বন্ধ করে দিয়েছি। পরবর্তী সময়ে পরীক্ষার ব্যবস্থা করবো।

খেলাধুলার উন্নয়নে সরকারের পদক্ষেপ তুলে ধরে তিনি বলেন, ‘আমাদের ক্রীড়াঙ্গনের প্রসার ঘটুক, আমরা সবাই সেটা চাই সরকারে না থেকেও খেলাধুলার উন্নতি নিয়ে চিন্তা করতাম এদিকে নজর রাখতাম খোঁজখবর নিতাম আমার বাবা ফুটবল প্লেয়ার ছিলেন, আমার দাদাও ফুটবল প্লেয়ার ছিলেন আমার দাদা এবং দাদার ছোট ভাই সবাই ওই অঞ্চলে ফুটবল খেলতেন

আগামী ২৫ জুন স্বপ্নের পদ্মা সেতু উদ্বোধন করা হবে। সেই প্রসঙ্গ টেনে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা পদ্মা সেতু এমন একটা সময় উদ্বোধন করতে যাচ্ছি, যখন একদিকে বন্যা শুরু হয়ে গেছে। এই বন্যা কিন্তু দক্ষিণাঞ্চলেও যাবে। আমি সবাইকে স্মরণ করিয়ে দিতে চাই ১৯৯৮ সালে বাংলাদেশে সব থেকে ভয়াবহ বন্যা এবং দীর্ঘস্থায়ী বন্যা হয়। ঠিক সেই বন্যা শুরুর আগেই কিন্তু যমুনা নদীর উপর বঙ্গবন্ধু সেতু উদ্বোধন করেছিলাম। সেটা উদ্বোধন করেছিলাম বলেই তখন সুবিধাটা হয়েছিল। উত্তরবঙ্গ থেকে পণ্য পরিবহন থেকে শুরু করে সব কাজগুলো করা যাচ্ছিল।

তিনি বলেন, ‘বন্যায় যেহেতু আমাদের নদী অত্যন্ত ভয়ঙ্কর হয়ে ওঠে খরস্রোতা হয়ে ওঠে, যোগাযোগের সুবিধা থাকে না। কিন্তু সেই সময় আমাদের এই দক্ষিণ অঞ্চল প্লাবিত ছিল, উত্তর অঞ্চল থেকে আমরা সবসময় সহযোগিতা পেয়েছিলাম, সেই সময় বন্যা আমরা খুব সফলভাবে মোকাবিলা করেছিলাম।

তিনি বলেন, ‘তখন (১৯৯৮ সালে) ইউএনডিপি-ওয়ার্ল্ড ব্যাংকের মতো অনেক আন্তর্জাতিক সংস্থা বলেছিল, এই বন্যায় কোটি মানুষ না খেয়ে মারা যাবে। আমি বলেছিলাম, একটা মানুষকেও আমি না খেয়ে মরতে দেবো না, আমরা দেইনি। ওই সেতুটা যখন আমরা উদ্বোধন করেছিলাম আমাদের বন্যা মোকাবেলা অনেক সহজ হয়েছিল। ঠিক আমি জানি না, আমার আজকে এই কথাটা মনে উঠলো যে আমরা ২৫ তারিখে পদ্মা সেতু উদ্বোধন করবো ইনশাল্লাহ

User Comments

  • জাতীয়