২৩ মে ২০২২ ৫:৬:৫০
logo
logo banner
HeadLine
পরিবেশ রক্ষায় যত্রতত্র অবকাঠামো করা যাবে না - প্রধানমন্ত্রী * খাদ্য, বিদ্যুৎ, আর্থিক সংকট কাটিয়ে ওঠার লক্ষ্যে সু-সমন্বিত প্রচেষ্টার জন্য প্রধানমন্ত্রীর আহ্বান * দেশে প্রায় ১ কোটি মানুষ হেপাটাইটিস ভাইরাসে আক্রান্ত * জনশক্তি রফতানিতে রেকর্ড, ৪ মাসে বিদেশ গেলেন সোয়া ৪ লাখ শ্রমিক * সারাদেশে ভোটার তালিকা হালনাগাদ কার্যক্রম শুরু * ব্যক্তিগতভাবে ৬০ বিঘার বেশি জমির মালিক হওয়ার সুযোগ থাকছে না * বিশিষ্ট সাংবাদিক আবদুল গাফফার চৌধুরীর মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শোক * রাইস ব্র্যান ও সরিষার তেল উৎপাদন বাড়ানো হবে - বাণিজ্যমন্ত্রী * বরেণ্য সাংবাদিক আবদুল গাফফার চৌধুরী আর নেই * অ্যান্টিবায়োটিক ওষুধ চিহ্নিতকরণ সহজ করতে ওষুধের মোড়কে লাল চিহ্ন ব্যবহারের সিদ্ধান্ত * কক্সবাজারকে পর্যটন নগরী হিসেবে গড়ে তোলা অপরিহার্য - প্রধানমন্ত্রী * ২ লাখ ৪৬ হাজার কোটি টাকার নতুন এডিপি অনুমোদন * পদ্মা সেতু পারাপারে টোল নির্ধারণ * দেশের মানুষের মুখে হাসি ফোটাতে দেশে ফিরেছিলাম : প্রধানমন্ত্রী * শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস আজ *
     17,2022 Tuesday at 11:43:32 Share

বাংলাদেশের মানুষ নিজেদের উদ্ভাবনী ক্ষমতা দিয়ে পৃথিবীকে অনেক বেশি দেবার ক্ষমতা রাখে।-পুতুল

বাংলাদেশের মানুষ নিজেদের উদ্ভাবনী ক্ষমতা দিয়ে পৃথিবীকে অনেক বেশি দেবার ক্ষমতা রাখে।-পুতুল

অটিজম-বিষয়ক জাতীয় উপদেষ্টা কমিটির চেয়ারপারসন সায়মা ওয়াজেদ হোসেন পুতুল বলেছেন, বাংলাদেশের মানুষের মতো মানুষ পৃথিবীর অন্য কোথাও নেই। কারণ এ দেশের মানুষের চাহিদা খুবই কম। নিজের উদ্ভাবনী ক্ষমতা দিয়ে তারা পৃথিবীকে অনেক বেশি দেবার ক্ষমতা রাখে।

রোববার (০৭ আগস্ট) সাভারের গেন্ডায় সেন্টার ফর ডিজ্যাবিলিটি ইন ডেভেলপমেন্টে (সিডিডি) প্রতিবন্ধিতা ও দুর্যোগ ঝুঁকি ব্যবস্থাপনা বিষয়ক ঢাকা সম্মেলনের মূল্যায়ন শীর্ষক কর্মশালায় এ কথা বলেন তিনি।

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় এবং সিডিডির উদ্যোগে এ কর্মশালার আয়োজন করা হয়। 

নীতি ও পরিকল্পনা প্রণয়নে প্রতিবন্ধীদের প্রত্যক্ষ অংশগ্রহণের ওপর জোর দিয়ে প্রধানমন্ত্রী কন্যা সায়মা ওয়াজেদ হোসেন বলেন, আসলে প্রতিবন্ধীরাই জানেন তাদের প্রকৃত চাহিদা ও প্রয়োজনটা কি। তাদের নিয়ে সরকারি নীতি ও পরিকল্পনা প্রণয়ন করা হলে তা যেমন টেকসই হবে, তেমনি দ্রুত বাস্তবায়নও  করা সম্ভব হবে।

প্রতিবন্ধীদের প্রতি মানবিক সম্পর্ক ও তাদের প্রতি সহমর্মিতা পরিবার থেকেই শুরু করা উচি। আর এটা সম্ভব হলে সমাজ ও রাষ্ট্রে প্রতিষ্ঠা হবে প্রতিবন্ধীদের অধিকার।

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি সায়মা ওয়াজেদ বলেন, আমরা দুর্যোগ মেকাবেলায় এখন বিশ্বে নেতৃত্ব দিচ্ছি। আগামী দিনে প্রতিবন্ধীদের জীবনমান উন্নত করার মাধ্যমে বিশ্বে তাদের নিয়ে গর্বিত হবো আমরা।

প্রতিবন্ধীদের কল্যাণে নেওয়া বিভিন্ন পরিকল্পনা সরকারি-বেসরকারি উদ্যোগের সঙ্গে সমন্বয় রেখে করা উচি বলেও মত দেন তিনি। 

২০১৫ সালের ১২-১৪ ডিসেম্বর আয়োজিত প্রতিবন্ধিতা ও দুর্যোগ ঝুঁকি ব্যবস্থাপনা বিষয়ক ঢাকা সম্মেলনের স্মৃতি উল্লেখ করেন সায়মা ওয়াজেদ। 

তিনি  বলেন, ওই সম্মেলনের পর দেশে প্রতিবন্ধীদের জন্যে ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি সৃষ্টি হয়েছে। সরকারি-বেসরকারি উদ্যোগে প্রতিবন্ধীদের কল্যাণে নেওয়া হয়েছে নানা পদক্ষেপ।

এর আগে সকালে সিডিডিতে পৌঁছালে সায়মা ওয়াজেদ  হোসেনকে স্বাগত জানান সংস্থাটির নির্বাহী পরিচালক এএইচএম নোমান খান ও স্থানীয় সংসদ সদস্য ডা. এনামুর রহমান।

এ সময় সিডিডির কার্যক্রমসহ প্রতিষ্ঠানটির বিভিন্ন বিভাগ ঘুরে দেখেন তিনি। একই সঙ্গে প্রতিবন্ধীদের কল্যাণ ও তাদের জীবনমান উন্নয়নে সিডিডির ভূমিকার প্রশংসাও করেন প্রধানমন্ত্রী কন্যা। 

User Comments

  • অন্যান্য সংবাদ